আয়ারল্যান্ডের অভিষেক টেস্ট পাকিস্তানের

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কদ্বিতীয় ইনিংসে ম্যাচ জমিয়ে তুলেছিল আয়ারল্যান্ড। ১৪ রানে পাকিস্তানের ৩ উইকেট তুলে নিয়ে অভিষেক টেস্টে অনন্য এক ইতিহাস গড়ার ইঙ্গিত ছিল যাতে। তবে পারেনি, ঘুরে দাঁড়িয়ে পাকিস্তান ঠিকই ডাবলিন টেস্ট জিতে নিয়েছে ৫ উইকেটে।

প্রথম ইনিংসে ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে টেস্ট ক্রিকেটের আসল সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলেছিল আয়ারল্যান্ড। ডাবলিনের এই ম্যাচ দিয়েই টেস্ট ক্রিকেটে পা রাখা আইরিশরা দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করেছে ১২৯.৩ ওভার, যেখানে কেভিন ও’ব্রাইন অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরি করলে ৩৩৯ রানে শেষ হয় স্বাগতিকদের ইনিংস। ফলোঅনে পড়া আইরিশরাই পাকিস্তানের দিকে ছুড়ে দেয় ১৬০ রানের লক্ষ্য। একমাত্র এই টেস্ট ম্যাচে এই লক্ষ্য ৫ উইকেট হারিয়ে পেরিয়ে যায় সরফরাজ আহমেদরা।

ব্যাটিংয়ে আলো ছড়ানো আয়ারল্যান্ড বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসে জ্বলে ওঠে। ১৪ রানের মধ্যে স্বাগতিকরা তুলে নেয় আজহার আলী (২), হারিস সোহেল (৭) ও আসাদ শফিকের (১) উইকেট তিনটি। টিম মার্টাগ (২/৫৫) ও বয়েড রানকিনের (১/৫৭) তোপে অভিষেক টেস্টেই জয় তুলে নেওয়ার অনন্য এক কীর্তি হাতছানি দিয়ে ডাকতে থাকে তাদের। তবে টেস্ট আঙিনায় অভিজ্ঞ পাকিস্তান ‘অনভিজ্ঞ’ ইমাম-উল-হকের অসাধারণ ইনিংসে তা হতে দেয়নি। আয়ারল্যান্ডের অভিষেক টেস্টটা করে নিয়েছে নিজেদের।

দ্রুত ৩ উইকেট হারানোর পর বাবর আজমকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংস মেরামত করেন এই ম্যাচ দিয়েই টেস্ট আঙিনায় পা রাখা ইমাম। চতুর্থ উইকেটে ১২৬ রানের কার্যকরী জুটি গড়ে পাকিস্তানের জয়ের ভিত গড়ে দেন তারা। বাবর ৫৯ রান করে আউট হলেও ইমাম দলের জয় নিশ্চিত করে তবে ছাড়েন মাঠ। পাকিস্তানি এই তরুণ ওপেনার ১২১ বলে অপরাজিত ছিলেন ৭৪ রানে।

অভিষেক টেস্টে জয়ের স্বপ্ন উঁকি দিলেও আইরিশ বোলাররা পরে সুবিধা করতে পারেননি। তবে প্রথম টেস্টেই ১১৮ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ জমিয়ে দেওয়া কেভিন ও’ব্রাইন জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। ক্রিকইনফো

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান: ৩১০/৯ (ডিক্লে.) ও ১৬০/৫ (ইমাম ৭৪*, বাবর ৫৯, সরফরাজ ৮; টিম মার্টাগ ২/৫৫)।

আয়ারল্যান্ড: ১৩০ ও ৩৩৯ (ফলোঅন) (কেভিন ও’ব্রাইন ১১৮, স্টুয়ার্ট থম্পসন ৫৩, এড জয়েস ৪৩; মোহাম্মদ আব্বাস ৫/৬৬, মোহাম্মদ আমির ৩/৬৩)।

ফল: পাকিস্তান ৫ উইকেটে জয়ী।

ম্যাচসেরা: কেভিন ও’ব্রাইন (আয়ারল্যান্ড)।

Print Friendly, PDF & Email