এএফসি কাপে হার দিয়ে শুরু আবাহনীর

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : এশিয়ার ক্লাব ফুটবলের অন্যতম সেরা টুর্নামেন্ট এএফসি কাপের শুরুতেই পরাজিত ঢাকা আবাহনী। বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নরা ১-০ গোলে হার মেনেছে মালদ্বীপের নিউ রেডিয়েন্টের কাছে।

প্রথম ম্যাচে হারের পাশাপাশি আরেকটি আঘাতও পেয়েছে আকাশি-হলুদ জার্সিধারীরা। লাল কার্ড দেখেছেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে চিজোবা। দলের অন্যতম ভরসাকে তাই পরের ম্যাচে পাচ্ছে না আবাহনী। ১৪ মার্চ ভারতের বেঙ্গালুরু এফসির মাঠে আবাহনীর দ্বিতীয় ম্যাচ। ‘ই’ গ্রুপের চতুর্থ দল ভারতের আইজল এফসি।

আবাহনীর দুর্ভাগ্য, সুযোগ পেয়েও গোল করতে পারেনি। আর অতিথিরা সুযোগের সদ্ব্যবহার করে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করেছে। ২৭ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো আবাহনী।  কিন্তু সানডে একক প্রচেষ্টায় দুই ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে বক্সে ঢুকে গোলরক্ষককে একা পেয়েও ক্রসবারের ওপর দিয়ে মেরে নষ্ট করেছেন সুবর্ণ সুযোগ।

৩৯ মিনিটে নিউ রেডিয়েন্টের সুযোগও নষ্ট হয়। আবাহনীর দুই ডিফেন্ডারের ভুল বোঝাবুঝির ফলে বক্সের ভেতরে বল পেয়ে যান স্পেনের ফরোয়ার্ড ‍গুইলেম। গোলরক্ষক সোহেল তখন পোস্ট ছেড়ে বেরিয়ে এসেছেন। তবে শেষ মুহূর্তে সাদ উদ্দিন বল ক্লিয়ার করলে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে আবাহনীর সমর্থকরা। ৪৩ মিনিটে সানডের জোরালো শট এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে প্রতিহত হলে গোলশূন্যভাবে শেষ হয় প্রথমার্ধ।

৪৯ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে নেওয়া রুবেল মিয়ার ক্রসে সানডের হেড ক্রসবারের ওপর দিয়ে গেলে আবার হতাশ হয় আবাহনী। ৫৮ মিনিটে এগিয়ে যায় মালদ্বীপের লিগ চ্যাম্পিয়নরা। মোহামেদ উমায়েরের লং বল নিয়ন্ত্রণ নিয়ে, বাঁ প্রান্ত দিয়ে বক্সে ঢুকে কোনাকুনি শটে গোল করেন আলি ফাসির।

সাত মিনিট পর আবাহনীর জন্য আরেকটি ধাক্কা! দ্বিতীয়  হলুদ কার্ড দেখে মাঠ থেকে বেরিয়ে যান সানডে। ১০ জন নিয়ে আবাহনী আর সমতা ফেরাতে পারেনি। বরং ৭০ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারতো। উমায়েরের শট গোললাইন থেকে ফিরিয়ে সে যাত্রা আবাহনীকে রক্ষা করেন নাইজেরিয়ান ডিফেন্ডার এলিসন উদোকা।

৮৮ মিনিটে ওয়ালি ফয়সালের ফ্রিকিক থেকে নাসিরউদ্দিনের হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে হার নিশ্চিত হয়ে যায় লিগ চ্যাম্পিয়নদের। 

 

Print Friendly, PDF & Email