এ্যাথলেট কোচ কালা দা বাঁচতে নয়, শুধু মৃত্যু কামনা করছেন!

আবু তালহা : শুধু পাবনা নয় বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের অতি পরিচিত মুখ ও দীক্ষাগুরু ব্রজগোপাল সাহা “কালাদা” যার শারিরীক অবস্থা দেখার জন্য বাংলাদেশ এ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সভাপতি এ এস এম আলী কবীর স্যার ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে আমার নিজ জেলা পাবনা হওয়াতে আমাকে প্রতিনিধি হিসেবে প্রেরণ করেন।

ফেডারেশনের তহবিল হতে এবং কার্যনির্বাহী কমিটির কিছু সদস্যের প্রাপ্ত টাকা তার চিকিৎসার জন্য প্রদান করা হয়।

ক্রীড়া প্রেমী, চিরকুমার, সড়ক দুর্ঘটনায় সঙ্গাহীন অবস্থায় পাবনা সদর হাসপাতালে অনেকদিন চিকিৎসার পর বৃহস্পতিবার (১৪জুন) ২০১৮ তাকে পাবনা মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

৬০ দশকের কৃতি এ্যাথলেট, বাংলাদেশের সাবেক দ্রুততম মানব -সাইদুর রহমান ডন ও মেহেদি হাসান সহ সাবেক ও বর্তমান অনেক কৃতি এ্যাথলেটের দীক্ষাগুরু।

দুঃখজনক এই যে, “সাদা মনের মানুষ” হিসাবে পরিচিত বিরল সম্মানে সম্মানিত হওয়া এই মানুষটির অসুস্থতার জন্য ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট বা ক্রীড়া বহিরাগত পরিচিত বিত্তবান কোনো ব্যক্তি অথবা প্রতিষ্ঠান কখনো তাঁর চিকিৎসার খোজ খবর রাখেননি বা তাকে আর্থিক সাহায্যেও করেনি। 

যিনি তার সারা জীবনের সকল পরিশ্রম ক্রীড়া অঙ্গনে ঢেলে দিছেন। সমাজে খেলাধুলা ভালোবাসার এমন মানুষ খুব কমই চোখে পরে। অথচ আজ সেই খেলোয়াড় তৈরীর কারিগরের পাশে কেউ না দাঁড়ানোর কারনে সে লোকদের বলে আমার মৃত্য কামনা করো।

ক্রীড়া অঙ্গনের সকল শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি অনুরোধ রইল এই ক্রীড়া মানব কে আপনারা বাঁচান। এবং তাকে আর্থিক সাহায্য পাঠানোর জন্য বাংলাদেশ এ্যাথলেটিকস ফেডারেশনে যোগাযোগ করতে পারেন… যদি ইচ্ছা করে। 

Print Friendly, PDF & Email