কিউইদের নাটকীয় জয়

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কবিশ্বকাপে নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে ১৬৪ রানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৭ উইকেট তুলে নেওয়ার পর সহজ জয়ের ক্ষণ গুনছিল নিউজিল্যান্ড। কিন্তু তাদের বুকে কাঁপন ধরিয়ে দেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। শেষ পর্যন্ত বীরত্বগাথা তৈরি করতে পারেননি তিনি। তার অবিশ্বাস্য লড়াই থামিয়ে কিউইরা পেয়েছে ৫ রানের নাটকীয় জয়।

নিউজিল্যান্ডের ছুড়ে দেওয়া ২৯২ রানের টার্গেটে দারুণ জবাব দিচ্ছিলেন ক্রিস গেইল। কিন্তু লোকি ফার্গুসন ব্রেক থ্রু আনেন। সেই ধাক্কা আরও বিরাট আকারে রূপ নেয় ট্রেন্ট বোল্টের তোপে। দুই পেসারের আঘাতে জীর্ণ হয়ে পড়ে ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং লাইন আপ। এই ধ্বংসস্তুপ থেকে দলকে টেনে তোলেন ব্র্যাথওয়েট। দারুণ এক সেঞ্চুরির পর জয় থেকে ৬ রান দূরে থাকতে আউট হন তিনি। তাতে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচটি হাতছাড়া হয় উইন্ডিজের। ৪৯ ওভারে ২৮৬ রানে থামে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। এর আগে কেন উইলিয়ামসনের (১৪৮) ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ৮ উইকেটে ২৯১ রান করে নিউজিল্যান্ড।

উইন্ডিজ লক্ষ্যে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায়। ২০ রানের মধ্যে শাই হোপ (১) ও নিকোলাস পুরানকে (১) সাজঘরে পাঠান বোল্ট। শিমরন হেটমায়ারকে নিয়ে বিপদ আর বাড়তে দেননি গেইল। দুই প্রান্ত আগলে খেলতে থাকেন তারা। ২৩তম ওভারে তাদের শক্ত জুটি বিচ্ছিন্ন করেন ফার্গুসন। ২৩তম ওভারের প্রথম বলে তিনি হেটমায়ারকে ৫৪ রানে বোল্ড করেন। ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানের ৪৫ বলের ইনিংসে ছিল ৮ চার ও ১ ছয়। পরের বলে জেসন হোল্ডার রানের খাতা না খুলে বিদায় নেন।

পরের ওভারে কিউইরা তাদের সবচেয়ে বড় বাধা দূর করেন। ঝড় তুলে বিপজ্জনক হয়ে ওঠা গেইল থামেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের কাছে। ৮৪ বলে ৮ চার ও ৬ ছয়ে ৮৭ রান করে আউট হন উইন্ডিজ ওপেনার। খানিক পর বোল্ট জোড়া আঘাতে বিদায় করেন অ্যাশলে নার্স (১) ও এভিন লুইসকে (০)।

মাত্র ২২ রানের ব্যবধানে ৫ উইকেট হারানোর পর আসা যাওয়ার মিছিল থামে ব্র্যাথওয়েট ও কেমার রোচের জুটিতে। অবশ্য সেটা বড় হয়নি। স্কোরবোর্ডে ৪৭ রান যোগ করে এই জুটি ভাঙে। টম ল্যাথামের কাছে কট বিহাইন্ড হয়ে ম্যাট হেনরির শিকার হন রোচ (১৪)।

ব্র্যাথওয়েটের সঙ্গে ম্যাচ বাঁচাতে লড়াই করে যান শেলডন কট্রেল। ফার্গুসনের কাছে বোল্ড হয়ে তিনি ফিরে যান ১৫ রান করে। ৩৪ রানের জুটি ভাঙলেও ব্র্যাথওয়েট ঝড় তুলে কিউইদের কপালে ভাঁজ ফেলেন। বিশেষ করে ৪৮তম ওভারে হেনরিকে টানা ৩টি ছয় ও একটি চার মেরে গ্যালারি কাঁপান এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ওই ওভারে ২৫ রান তোলেন তিনি। ৮০ বলে ৯ চার ও ৫ ছয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিও করেন ব্রাথওয়েট। কিন্তু জিমি নিশামের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে থামতে হয় তাকে। উঁচুতে ওঠা বলে লম্বা শট নেন তিনি, বল বাউন্ডারির বাইরে আঁছড়ে পড়ার কথা। সেটা হতে দেননি বোল্ট, লং অনে চমৎকার ক্যাচ ধরে ব্র্যাথওয়েটকে বিদায় করে জয় নিশ্চিত করেন তিনি। ৮২ বলে ৯ চার ও ৫ ছয়ে ১০১ রানে আউট হন উইন্ডিজ ব্যাটসম্যান।

বোল্ট সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন। তিনটি পান ফার্গুসন। ম্যাচসেরা হয়েছেন উইলিয়ামসন। দলকে জিতিয়ে সবার উপরে তুললেন অধিনায়ক। ৬ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে কিউইরা। সমান খেলে মাত্র ৩ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে উইন্ডিজ।

Print Friendly, PDF & Email