খেলা শেষ না করেই মাঠ থেকে উঠে গেল মোহামেডান ও মেরিনার্স!

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক : বাংলাদেশের প্রিমিয়ার হকি লিগ মানেই যেন গোলযোগ আর বিতর্ক! প্রায় প্রতিটা ম্যাচেই এবার হট্টগোল কম হয়নি। বৃহস্পতিবার (৭মে) ২০১৮ মোহামেডান ও মেরিনার্সের ম্যাচও এর বাইরে থাকেনি।

গোলযোগের কারণে দুদলের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র নিয়ে অমীমাংসিত থেকে গেছে। ৪৪ মিনিট খেলা চলার পর ম্যাচ আর টার্ফেই গড়ায়নি!

এই অবস্থায় ম্যাচটি আবার হবে কিনা এ নিয়েও তৈরি হয়েছে জটিলতা। ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক জানিয়েছেন সেই কথা, ‘হকি মাঠে এমন ঘটনা দুঃখজনক। ইচ্ছে করলে ‍দুদল খেলা শেষ করতে পারতো। কিন্তু হয়নি। এখন আম্পায়ারদের রিপোর্ট দেখে লিগ কমিটি নতুন করে সিদ্ধান্ত নেবে।’ 

মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে এর আগে ম্যাচের তিন মিনিটে মোহামেডান এগিয়ে যায়। জিমির হিট গোলকিপার ফিরিয়ে দিলে ভারতীয় গুরজিন্দার সিং বল পেয়ে টোকা দিয়ে দলকে এগিয়ে নেন। মেরিনার্সের পুষ্কর খীসা মিমোর রিভার্স হিট বারের ওপর দিয়ে গেলে হতাশ হতে হয়। প্রতি আক্রমণে গুরুজিন্দার সিং একক প্রচেষ্টায় বল নিয়ে গোলকিপারকে একা পেয়েও ব্যবধান বাড়াতে পারেনি।

বিরতির পর ৪১ মিনিটে মেরিনার্সের সুযোগ নষ্ট হয়। মহসিন আহমেদের হিট শেষ মুহূর্তে গোললাইন থেকে ক্লিয়ার করে অরবিন্দর সিং। ৪৪ মিনিটে মেরিনার্সের সমতাসূচক গোলকে কেন্দ্র করেই খেলা বন্ধ।

রেজাউল করিম বাবুর লং বল থেকে শফিউল আলম শিশির ফ্লিক করে গোল করেন। আম্পায়ার তাদের পক্ষে বাঁশিও দেন। কিন্তু মোহামেডান শিশিরের স্টিকে বল লাগেনি বিধায় রিভিউ নেয়। একপর্যায়ে দুপক্ষের তর্ক-বিতর্কের মাঝে টার্ফে ছেড়ে চলে যান বিদেশি আম্পারায়াররা। একটু পর কর্মকর্তাদের অনুরোধে আবারো তারা মাঠে প্রবেশ করেন।

অনেক দেনদরবারের পর মেরিনার্সের পক্ষে গোলের বাঁশি আবারো বাজে। এরপর আম্পায়াররা খেলা শুরুর জন্য দুই দলকে ওয়ার্মআপ করার জন্য ১০ মিনিট করে সময় দেন। এসময় মেরিনার্স ওয়ার্মআপ করলেও মোহামেডান ফের গোল বাতিলের জন্য জোর দাবি জানাতে থাকে। আপত্তি জানিয়ে পরবর্তীতে মাঠে ফেরে সাদা-কালো জার্সিধারীরা।

এমন অবস্থায় ১০ মিনিটের জায়গায় ১৮ মিনিট হয়ে যাওয়ায় মেরিনার্স না খেলার জন্যে বেঁকে বসে। শেষ পর্যন্ত সবমিলিয়ে দেড় ঘণ্টার এই নাটকের পর দুই বিদেশি আম্পায়ার দ্বিতীয়বারের মতো মাঠ ছেড়ে চলে যান। তাই এই ম্যাচটি অমীমাংসিতই থেকে গেছে।

এর আগে দিনের প্রথম ম্যাচে সোনালী ব্যাংক ৫-১ গোলে অ্যাজাক্স এর বিপক্ষে জয় তুলে নেয়। 

Print Friendly, PDF & Email