গুলবাদিনকে সরিয়ে আফগানদের নতুন অধিনায়ক রশিদ

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কআফগানিস্তানের অধিনায়কত্ব নিয়ে এক প্রস্থ নাটক হয়েছিল বিশ্বকাপের আগে। যে গুলবাদিন নাইবকে ওয়ানডের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল বিশ্বকাপে। বাজেভাবে ক্যাম্পেইন শেষ হওয়ায় তাকেসহ রহমত শাহকে টেস্ট থেকে সরিয়ে এবার সব ফরম্যাটের জন্য নেতৃত্বে আনা হয়েছে লেগ স্পিনার রশিদ খানকে। আসগর আফগানকে পূর্বে নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হলেও তাকে দেওয়া হয়েছে এবার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের দায়িত্ব।

বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্স ছাড়াও গুলবাদিন সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হয়েছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে লিগ পর্বের ম্যাচের জন্য। সেই ম্যাচে তার অধিনায়কত্ব নিয়ে সমালোচনা হয়েছে বেশি।

এই গুলবাদিনকে যখন নেতৃত্বে আনা হয়েছিল তখনও সমালোচনা হয়েছে খুব। সবচেয়ে বেশি সমালোচনায় মুখর ছিলেন রশিদ খান ও মোহাম্মদ নবীরা। তাই এবার টি-টোয়েন্টির শীর্ষ বোলারকে নেতৃত্বের ভার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

নতুন দায়িত্ব পেয়ে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে রশিদ খান নিজের ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘আপনাদের ভালোবাসা এবং আন্তরিকতার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড আমাকে জাতীয় দলের অধিনায়ক করায় তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।’

তিনি আরও যোগ করে লিখেছেন, ‘কথা দিচ্ছি আমি আফগানিস্তান ক্রিকেটের উন্নতিতে দিন-রাত পরিশ্রম করবো। আর আমাকে সমর্থন করার জন্য সাবেক অধিনায়ক গুলবাদিন কে ধন্যবাদ।’

অবশ্য এই বিশ্বকাপে খুব একটা জ্বলে উঠতে পারেননি রশিদ খান। ওয়ানডের ৮ নম্বর এই বোলার ৮ ইনিংসে নিয়েছেন মাত্র ৬ উইকেট। গড় ছিল ৬৯.৩৩। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সবচেয়ে লজ্জার রেকর্ডই যুক্ত হয়েছে তার ক্যারিয়ারে। ৯ ওভারে ১১০ রান দিয়ে ব্যয়বহুল বোলারদের তালিকায় যৌথভাবে জায়গা করে নিয়েছেন দ্বিতীয় স্থানে।

রশিদ খান অবশ্য এর আগ থেকেই টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্বে ছিলেন। এছাড়া আফগানদের নেতৃত্ব দিয়েছেন বিশ্বকাপ বাছাইয়ে। গত বছর আসগর আফগান খেলতে না পারায় ৪টি ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দিলেও তিনটিতে হেরেছে আফগানিস্তান। অবশ্য টি-টোয়েন্টি লিগে নেতৃত্ব দিয়ে সফলতার মাত্রা খুব খারাপ নয় তার। ১০ জয়ের বিপরীতে হার ৬টিতে।

শোনা গেছে, বিশ্বকাপের পূর্বেই নাকি এই নেতৃত্ব ভার দিতে উন্মুখ ছিল আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু রশিদ খান রাজি হননি তখন। পরে অবশ্য নাইবের ডেপুটি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয় তাকে।

Print Friendly, PDF & Email