চলে গেলেন ফুটবলার ‘স্কুটার গফুর’

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কমাঠে নামলেই চিতার ক্ষিপ্রতায় দৌড়াতেন! ষাট আর সত্তরের দশকে আবদুল গফুর ভূঁইয়ার খেলা দেখে তাই সবাই তাঁর নাম দিয়েছিল ‘স্কুটার গফুর’।

সাবেক এই ফুটবলারের গতি চিরদিনের জন্য থেমে গেল শুক্রবার (৬জুলাই) ২০১৮। নরসিংদীর দোগড়িয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে  দুপুরে অসুস্থ অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন ৮০ বছর বয়সী আবদুল গফুর (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। 

এক বছর ধরেই অসুস্থ হয়ে বিছানায় দিন কাটছিল তাঁর। ডায়াবেটিসের চিকিৎসার জন্য বারডেমে ভর্তি হয়েছিলেন গত বছরের আগস্টে। চার দিন আগে তাঁর ডান পায়ের তৃতীয় আঙুলে অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকেরা।

এরপর থেকেই ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ে শরীর। আজ সকালে অবস্থার এতটাই অবনতি হয়েছিল যে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় পাননি পরিবারের সদস্যরা।

আবদুল গফুরের ছোট ছেলে আরামবাগের মিডফিল্ডার মোকাররম হোসেন জানান, ‘বাবা সকাল থেকে আবারও খুব অসুস্থ হয়ে পড়েন। আমরা হাসপাতালে নেওয়ার আগেই তিনি মারা গেছেন।’ বাদ মাগরিব জানাজা শেষে নরসিংদীতে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয় তাঁকে। 

আবদুল গফুর ষাটের দশকের মাঝামাঝি থেকে এক যুগের বেশি সময় ঢাকার ফুটবল মাতিয়েছেন। ১৯৭১ সালে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলে যোগ দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু গফুরকে পাকিস্তানি বাহিনী বন্দী করেছিল।

ইচ্ছা থাকলেও তাই ওই সময় খেলতে পারেননি স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলে। স্বাধীনতার পর ঢাকার ফুটবলে আবাহনীর হয়ে প্রথম গোলটি করে ছিলেন তিনি। আবাহনী ছাড়াও বিজি প্রেস ও রহমতগঞ্জেও খেলেছেন এই কৃতি ফুটবলার। 

Print Friendly, PDF & Email