টটেনহামকে হারিয়ে টানা পঞ্চম জয় ম্যানইউর

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কম্যাচে একমাত্র গোল করে জয়ের নায়ক হওয়ার কথা মার্কাস রাশফোর্ডের, কিন্তু চলতি মৌসুমে যে কারো চেয়ে এক ম্যাচে বেশি সেভ করে সব আলো কেঁড়ে নিলেন গোলরক্ষক দাভিদ দে গিয়া। মূলত তার নায়কোচিত পারফরম্যান্সেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে টানা পঞ্চম জয় তুলে নিলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

ওয়েম্বলিতে টটেনহামকে ১-০ গোলে হারিয়ে টানা পঞ্চম জয় পেলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিয়োগ পাওয়া ওলে গানার সোলশার। যাকে বলে একদম ‘পারফেক্ট’ শুরু।

দলের প্রথম গোলের পর অনুপ্রাণিত দে গিয়া যেনো গোল পোস্টের সামনে দেয়াল হয়ে দাঁড়ালেন। সবমিলিয়ে ১১টি সেভ করেছেন এই স্প্যানিশ, যা চলতি মৌসুমে এক ম্যাচে একজন গোলরক্ষকের সর্বোচ্চ সেভ। আর তাতেই গোল খাওয়া থেকে বারংবার বেঁচে যাওয়া ম্যানইউ শেষ পর্যন্ত মূল্যবান ৩ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

পুরো ম্যাচে মাত্র একবার পরাস্ত হন ম্যানইউ গোলরক্ষক। তবে স্পারদের অধিনায়ক হ্যারি কেইনের সেই গোল অফসাইডের দায়ে বাতিল হয়ে যায়। এরপরই হতাশ টটেনহামকে হতবাক করে দিয়ে গোল করে বসেন রাশফোর্ড। ফরাসি মিডফিল্ডার পল পগবার পাসকে আগুনের গোলা বানিয়ে টটেনহাম গোলরক্ষক হুগো লরিসকে পরাস্ত করেন এই ইংলিশ ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধে গোলের জন্য সম্ভাব্য সবরকম চেষ্টা করেও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়নি টটেনহাম। প্রথমে কেইনের শট পা দিয়ে ঠেকিয়ে দেন দে গিয়া। কিছুক্ষণ পর ডেলে আলীর হেডকে অকার্যকর করে দেন। অল্প সময় পরে এই দুজনকেই ফের গোলবঞ্চিত করেন তিনি। এবারও কেইনের শট পা দিয়েই ঠেকিয়ে দিয়ে দলকে বিপদ মুক্ত করেন।

কোচের আসন গ্রহণ করার পর পাঁচ ম্যাচেই জয়ের দেখা পেলেন সোলশার। আর তার দল ম্যানইউ এখন পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বর অবস্থানের দিকে নজর দিতে পারছে। চারে থাকা চেলসির পয়েন্ট ৪৭। আর পাঁচে থাকা আর্সেনালের সমান পয়েন্ট (৪১) এখন ‘রেড ডেভিল’দেরও। তবে গোল পার্থক্য একধাপ নিচে রেখেছে তাদের। 

অন্যদিকে সমান ম্যাচে (২২) ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনেই রইলো টটেনহাম।

Print Friendly, PDF & Email