টাকার অভাবে সিরিজ আয়োজন নিয়ে বিপাকে জিম্বাবুয়ে

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : টাকা নেই জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের- এমন কথা বেশ কয়েক বছর ধরে বলে আসছে দেশটি।  এই কারণে অনেক তারকা ক্রিকেটারই চলে গিয়েছিলেন কাউন্টি ক্রিকেটে। মাঝখানে ব্রেন্ডন টেলররা ফিরে আবার অবস্থা পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। কিন্তু ঘুরে ফিরে সেই একই সমস্যায় জর্জরিত দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

সম্প্রচার থেকে টানা পাচ্ছে না বলে জুলাই-আগস্টে পাকিস্তানের জিম্বাবুয়ে সফরটিও এখন হুমকির মুখে। সফরটি যে বাতিল হয়ে যেতে পারে নিরুপায় হয়ে সেরকম কথাই জানিয়েছেন বোর্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফয়সাল হাসনাইন, ‘আর্থিক যেই অবস্থা চলছে তাতে পাকিস্তান সিরিজ সম্ভব না। কারণ সম্প্রচার থেকে আমরা সেভাবে টাকা পাচ্ছি না। প্রোডাকশন বাবদ যে খরচ হয় তাতেই অনেক লোকসান হয়ে যাচ্ছে।’

এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সময় প্রয়োজন জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের। তা না হলে এই সিরিজ আয়োজন হচ্ছে না। অবশ্য লাভের কথা বিবেচনা করে এর আগে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তানকে নিয়ে জুনে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে চেয়েছিল। কিন্তু সার্বিক অবস্থায় তাও সম্ভব হচ্ছে না।

এমন পরিস্থিতে পাশে থাকার কথা জানিয়েছে সফরকারী দেশ পাকিস্তান।  ২০১১ সালের পর থেকে একমাত্র পাকিস্তানই জিম্বাবুয়েতে সব চেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে আসছে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড জিম্বাবুয়েকে জানিয়েছে, তাদের সিদ্ধান্ত যাই হোক না কেন পাকিস্তান তাদের পাশে থাকবে। যদি তেমন সিদ্ধান্তই বহাল থাকে তাহলে এই সিরিজে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি খেলবে পাকিস্তান ও জিম্বাবুয়ে।

অবশ্য এর আগে এফটিপি অনুসারে অস্ট্রেলিয়ার জিম্বাবুয়ে সফর করার কথা জুনে।  দ্বিপাক্ষিক সিরিজে একটি টেস্টও রয়েছে।  আর এই সিরিজকেই আপাতত ত্রিদেশীয় সিরিজে রূপ দিতে চায় জিম্বাবুয়ে। টেস্ট বাদ দিয়ে অন্তত সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে যাতে খেলাটি হয় সে দিকেই নজর দেশটির। তাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে সময় লাগতে পারে ২ থেকে তিন সপ্তাহ।

Print Friendly, PDF & Email