দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম জয়

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কএই বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের দেখা পেলো দক্ষিণ আফ্রিকা। নিজেদের পঞ্চম ম্যাচ খেলতে নেমে তারা হারিয়েছে আফগানিস্তানকে। কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনসে শনিবার ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে তারা ১১৬ বল হাতে রেখে জিতেছে ৯ উইকেটে।

টস জিতে ফিল্ডিং নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। বৃষ্টির কারণে আফগানিস্তানের ইনিংস কিছুক্ষণ বন্ধ থাকলে ম্যাচ নির্ধারিত হয় ৪৮ ওভার করে। ৩৪.১ ওভারেই ১২৫ রানে অলআউট হয় আফগানরা। জবাবে প্রোটিয়ারা ২৮.৪ ওভারে ১৩১ রান করে ১ উইকেট হারিয়ে।

আগে ব্যাট করতে নেমে ইমরান তাহিরের স্পিন আর ক্রিস মরিস ও আন্দিলে ফেলুকাওয়ের তোপে বিপদে পড়ে আফগানিস্তানের ব্যাটিং লাইন আপ। হযরতউল্লাহ জাজাই ও নুর আলী জাদরানের ৩৯ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে কাগিসেরা রাবাদার বলে।

মাত্র ৭৭ রানে ৭ উইকেট হারানো আফগানিস্তান দলীয় স্কোর একশ ছাড়ায় রশিদ খান ও ইকরাম আলী খিলের ৩৪ রানের জুটিতে। ২৫ বলে ৬ চারে ইনিংস সেরা ৩৫ রান করেন রশিদ। এছাড়া শুধু নুর আলী (৩২) ও জাজাইয়ের (২২) ব্যাটে এসেছে দুই অঙ্কের রান।

৭ ওভারে ২৯ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সেরা বোলার ইমরান, ম্যাচসেরাও হয়েছেন এই লেগ স্পিনার। তিনটি উইকেট পান মরিস। দুটি নেন ফেলুকাও।

লক্ষ্যে নেমে হাশিম আমলা ও কুইন্টন ডি ককের উদ্বোধনী জুটিতে সহজ জয়ের পথে ছুটতে থাকে দক্ষিণ আফ্রিকা। ৭২ বলে ৮ চারে ৬৮ রান করে ডি কক আউট হলে ভাঙে ১০৪ রানের জুটি। ফেলুকাওকে সঙ্গে করে বাকি রান করেন আমলা। ৪১ রানে অপরাজিত ছিলেন এই ওপেনার। ফেলুকাও খেলছিলেন ১৭ রানে।

বিশ্বকাপের প্রথম তিন ম্যাচ হারের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রোটিয়াদের ম্যাচটি বৃষ্টিতে পণ্ড হয়। তাতে এই আসরে প্রথমবার পয়েন্ট অর্জন করে তারা। এবার প্রথম জয়েই বাংলাদেশ ও পাকিস্তানকে টপকে সপ্তম স্থানে উঠে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। পাঁচ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট তাদের। চার ম্যাচের সবগুলো হেরে আফগানিস্তান সবার শেষে।

Print Friendly, PDF & Email