নারীদের নিয়ে অশালীন মন্তব্য; লোকেশ-হার্দিককে শোকজ

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কজনপ্রিয় টিভি শো ‘কফি উইথ করণ’ এ নারীদের প্রতি অশালীন মন্তব্য করে বিপদে পড়ে গেছেন ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের দুই তারকা হার্দিক পাণ্ডিয়া ও লোকেশ রাহুল! তীব্র সমালোচনার মুখে তাদের শোকজ করেছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আগামী দিনে অক্রিকেটীয় কোনো অনুষ্ঠানে ক্রিকেটারদের যোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ জারি করতে পারে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে গড়া প্রশাসকদের কমিটির চেয়ারম্যান বিনোদ রাই বুধবার বলেছেন, ‘এই ধরনের মন্তব্যের জন্য শোকজ নোটিস পাঠানো হয়েছে হার্দিক-রাহুল, দুজনকেই। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে উত্তর দিতে হবে ওদের।’

‘কফি উইথ করণ’ পোগ্রামে তাদের দুজনের মন্তব্য নিয়ে ভারতজুড়ে চলছে সমালোচনা। বিশেষ করে নারীদের নিয়ে তাদের মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ধিক্কৃত হচ্ছে। তাদের মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। হার্দিক অবশ্য এর পরিপ্রেক্ষিতেই ক্ষমা চেয়েছেন। রাহুল অবশ্য এখনও কোনো মন্তব্য করেননি। কিন্তু বিসিসিআই মনে করছেন ক্ষমা চাওয়াতেই এই ব্যাপারটা শেষ হয়ে যাচ্ছে না। নারীদের সম্মান করাকে হার্দিক-রাহুল যে একেবারেই গুরুত্ব দেন না তা ফুটে উঠেছে অনুষ্ঠানে।

টুইটারে ক্ষমা চেয়ে হার্দিক লিখেছেন,’কফি উইথ করণ অনুষ্ঠানে আমার বক্তব্যে যদি কেউ আহত হয়ে থাকেন, তবে ক্ষমাপ্রার্থী। আসল ওই অনুষ্ঠানের ধরণই এমন যে নিজেকে সামলাতে পারিনি। তবে কাউকে অসম্মানিত করতে চাইনি। কাউকে আহত করতেও চাইনি। বা কারও আবেগে আঘাত হানতে চাইনি।’

বোঝাই যাচ্ছে, বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো কঠোর অবস্থান নিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। হার্দিক ও রাহুল দুজনেই এখন অস্ট্রেলিয়ায়। শনিবার থেকে শুরু হতে চলা তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দলে আছেন তারা। রাহুল অবশ্য পুরো টেস্ট সিরিজেই দলে ছিলেন। তিনটি টেস্ট খেলে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন। হার্দিক শেষ দুই টেস্টের জন্য স্কোয়াডে এসেছিলেন। কিন্তু কোনো টেস্টে তাকে একাদশে দেখা যায়নি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার হিসেবে কী বলা উচিত, তা হার্দিক-রাহুলের জানা দরকার বলেও মনে করছে বোর্ড।

কী বলেছিলেন হার্দিক ও রাহুল?

অনুষ্ঠানে উপস্থাপক করণ জোহরের এক প্রশ্নের জবাবে লোকেশ রাহুল বলেন, ১৮ বছর বয়সে তার ঘরে কনডম পেয়ে তার মা ভয়ানক রেগে গিয়েছিলেন। তবে তার বাবা এটা ব্যবহার করতে দেখে তার পিঠ চাপড়ে দিয়েছিলেন!

তবে সব মাত্রা অতিক্রম করে যান হার্দিক পাণ্ডিয়া। কোনো পার্টিতে গিয়ে তিনি মেয়েদের ‘নড়াচড়া’ লক্ষ করেন, হার্দিকের এই ধরনের মন্তব্য ‘অশালীন’ লেগেছে অনেকেরই। এ ছাড়াও বাবা-মায়ের সঙ্গে তার খোলাখুলি সম্পর্ক বোঝাতে হার্দিক জানান যে, প্রথম ‘ভার্জিনিটি’ হারানোর দিনে তিনি বাড়িতে এসে বাবা-মাকে জানান যে, ‘আজ করকে আয়া’!

অন্য একটি পার্টিতে হার্দিককে তার বাবা-মা জিজ্ঞেস করেন যে, কে তার বিশেষ বান্ধবী? হার্দিক নাকি তখন সেই পার্টিতে উপস্থিত নারীদের মধ্যে থেকে গুনে শেষ করতে পারছিলেন না যে কে কার সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিলনা!

এছাড়া করণের একটি প্রশ্নের উত্তরে রাহুল ও হার্দিক দুজনেই বলেন, বিরাট কোহালিকে তারা শচীন টেন্ডুলকারের থেকে ভালো ব্যাটসম্যান বলে মনে করেন। ভারতীয় দলের তারকাদের এই বক্তব্য মোটেই ভালোভাবে নেননি লক্ষ লক্ষ শচীন ভক্ত।

Print Friendly, PDF & Email