বাফুফে এখন দুর্নীতির আখড়া, ফিফার দেয়া হাজার হাজার ডলার কোথায় যায় : বাদল রায়

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সহ-সভাপতি ও সাবেক তারকা ফুটবলার বাদল রায় বলেছেন, ফিফার টাকা কোথায় যায়, তা জানতে চাওয়ায় ফেডারেশনের অনেকের শত্রু হয়েছি।

বৃহস্পতিবার (৩১মে) ২০১৮ বিকেলে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেছেন দেশের নন্দিত এ ফুটবলার।

বাফুফের সাধারণ সম্পাদক সোহাগ বাদল রায়কে ফেডারেশনে আসতে না করে হুমকি দিয়েছেন অভিযোগ করে তার স্ত্রী মাধুরী রায় ওয়ারি থানায় যে সাধারণ ডায়েরি করেছেন, তার প্রেক্ষিতে আকস্মিক এ সংবাদ সম্মেলন করেন বাফুফের তিন তিনবারের নির্বাচিত সহ-সভাপতি।

 

বাফুফের সহ-সভাপতি, অথচ বাফুফে ভবনে সংবাদ সম্মেলন না করে ক্লাবে কেন করলেন? ‘আসলে এটা একটা সাংঘর্ষিক বিষয়। যে কারণে আমি আমার ক্লাবে করেছি’-বলেন বাদল রায়।

বাফুফের ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে ফুটবলের ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কথা বলতে হয় উল্লেখ করে বাদল রায় বলেন, ‘আমি ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করি বলে সোচ্চার থাকতে হয়। ফেডারেশনে যে অর্থ অপচয় হয় তা নিয়েই কথা বলি। আমি মনে করি, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা থাকলেই এসব সমস্যার সমাধান সম্ভব।’ 

উল্লেখ্য যে, ২৬মে বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগের সঙ্গে বাদল রায় ও তার স্ত্রী মাধুরীর বাফুফে ভবন ও ফোনে বাদানুবাদ এর ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনার জের ধরে শেষ পর্যন্ত মাধুরী ওয়ারী থানায় সোহাগের বিরুদ্ধে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন, যার নম্বর ১৮৫৯।

২৬ মে করা ডায়েরিতে মাধুরী রায় উল্লেখ করেছেন, “আবু নাইম সোহাগ হুমকির স্বরে বলেছেন, ‘তিনি (বাদল রায়) যেন ফেডারেশনে না আসেন। এলে যেন চা খেয়েই চলে যান।’ এ ধরনের ফোন আমার কাছে হুমকি ও বড় ধরনের ষড়যন্ত্রের আভাস বলে মনে হয়। তাই আমার স্বামীর সম্মান ও জীবনের ব্যাপারে আতঙ্কে আছি।’

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতিতে আজ বৃহস্পতিবার (৩১মে) নিজের প্রিয় মোহামেডান ক্লাবে জরুরী সংবাদ সম্মেলন করেন তারকা ফুটবলার বাদল রায়। 

Print Friendly, PDF & Email