বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ পেরুর অধিনায়ক

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কদীর্ঘ ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ করে নেয় লাতিন আমেরিকার দেশ পেরু। কিন্তু যার হাত ধরে পেরুর বিশ্বকাপে খেলা সেই পেরুর অধিনায়ক পাওলো গুয়েরেরোর খেলা হচ্ছে না বিশ্বকাপে।

আজ এক বিজ্ঞপ্তিতে কোর্ট অব আর্বিট্রেশন অব স্পোর্টস (সিএএস) ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ায় গুইরেরোর শাস্তির মেয়াদ বাড়িয়ে ছয় মাস থেকে ১৪ মাস করার ঘোষণা দেয়। এর ফলে বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে পেরুর জার্সি গায়ে তার খেলা হচ্ছে না।

গেল বছরের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচের আগে চায়ের সাথে নিষিদ্ধ কোকেইন মিশিয়ে খাওয়ায় ম্যাচের পর অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। অক্টোবর মাসেই তাকে দোষী সাব্যস্ত করে ১২ মাস ফুটবল থেকে নিষিদ্ধ করা হয়।

কিন্তু শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করে সেটিকে কমিয়ে ছয় মাসে নিয়ে আসেন তিনি। সেই কমিয়ে আনার বিরুদ্ধে আবার আপিল করে সিএএস। সেই আপিলের পরিপ্রেক্ষিতেই তার শাস্তির মেয়াদ বাড়িয়ে ১৪ মাস করা হয়।

মাত্র দশ দিন হলো তার শাস্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে কিন্তু এর মাঝেই নতুন করে শাস্তি বাড়ানোয় আর বিশ্বকাপে খেলা হচ্ছে না পেরুর ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতার। জাতীয় দলের হয়ে ৮৩টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে সর্বোচ্চ ৩২ গোল করেছেন।

ছয় মাস বসে থাকার পর রোববারই প্রথমবারের মতো মাঠে নামে ক্লাব ফুটবলে ফ্লামেঙ্গোর হয়ে। সেই ম্যাচে একটি গোল করে দলকে ৩-২ গোলের জয় এনে দেন এই স্ট্রাইকার। সোমবার তার এই শাস্তি বাড়ানোর ঘোষণা আসলে হতাশায় মুষড়ে পড়েন তিনি।

গুয়েরেরোর অনুপস্থিতি বিশ্বকাপে পেরু দলকে বেশ ভোগাবে। বিশেষ করে গ্রুপ পর্বে তাদের লড়তে হবে ফ্রান্স, ডেনমার্ক এবং অস্ট্রেলিয়ার মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে।

Print Friendly, PDF & Email