ভারতে টি-টোয়েন্টির পর ওয়ানডে সিরিজও অস্ট্রেলিয়ার

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কভারতকে তাদেরই মাটিতে লজ্জায় ডোবালো অস্ট্রেলিয়া। টি-টোয়েন্টির পর ওয়ানডে সিরিজও জিতে নিয়েছে সফরকারীরা। বুধবার সিরিজ নির্ধারনী শেষ ওয়ানডেতে স্বাগতিকদের ৩৫ রানে হারিয়েছে অ্যারন ফিঞ্চরা।

তাও আবার যেনতেন ভাবে নয়, প্রথম দুই ম্যাচ হেরেও ঘুরে দাঁড়িয়ে সিরিজ নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া। দিল্লির শেষ ওয়ানডেতে উসমান খাজার সেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে সফরকারীরা ৯ উইকেটে স্কোরে জমা করে ২৭২ রান। লক্ষ্যটা আর পেরোতে পারেনি ভারত। অস্ট্রেলিয়ার নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে ইনিংসের শেষ বলে অলআউট হওয়ার আগে তারা করতে পারে ২৩৭ রান। তাতে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া।

অথচ প্রথম দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ হার একরকম দেখেই ফেলেছিল সফরকারীরা। যদিও দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে টানা তিন ম্যাচ জিতে সিরিজ নিশ্চিত করে তারা। ৫০ ওভারের সিরিজের আগে টি-টোয়েন্টিতেও দাপট দেখায় অস্ট্রেলিয়া, দুই ম্যাচের সিরিজে ভারতকে করে হোয়াইটওয়াশ।

২-২ সমতায় থাকায় দিল্লির শেষ ম্যাচটি ছিল ‘ফাইনাল’। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে টস জিতে অস্ট্রেলিয়াকে  শক্তিশালী ভিত দেন ওপেনার উসমান খাজা। আগের ম্যাচে একটুর জন্য সেঞ্চুরি মিস করা এই ওপেনার এবার আর ভুল করেননি। এই সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম শতক পূর্ণ করা খাজা পেয়েছেন আরেকটি সেঞ্চুরি। ১০৬ বলে ১০ চার ও ২ ছক্কায় তিনি খেলেন ১০০ রানের ইনিংস। খাজার স্মরণীয় সফরটি আরও মধুর হয়েছে ম্যাচসেরার সঙ্গে সিরিজসেরার পুরস্কার জিতে।

চতুর্থ ওয়ানডেতে সেঞ্চুরি করা পিটার হ্যান্ডসকম্বও আলো ছড়িয়েছেন। তার ব্যাট থেকে আসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫২ রান। যদিও মিডল অর্ডার দাঁড়াতে পারেনি ভুবনেশ্বর কুমার (৩/৪৮), মোহাম্মদ সামি (২/৫৭) ও রবীন্দ্র জাদেজার (২/৪৫) চমৎকার বোলিংয়ের সামনে। ওপেনিংয়ে অ্যারন ফিঞ্চ করেন ২৭। মার্কাস স্টোইনিস ও অ্যাশটন আর্থার দুজনই করেন ২০ রান। আর শেষ দিকে ঝাই রিচার্ডসনের ব্যাট থেকে আসে গুরুত্বপূর্ণ ২৯ রান।

২৭৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ভারত ‍শুরুতেই হারায় শিখর ধাওয়ানের (১২) উইকেট। বিরাট কোহলিও (২০) ব্যর্থ। তাদের ব্যর্থতার মাঝে হাফসেঞ্চুরি করেন রোহিত শর্মা, তিনি খেলেন দলীয় সর্বোচ্চ ৫৬ রানের ইনিংস। টপ অর্ডারে ধাক্কা খাওয়া ভারতকে টেনে তুলতে পারেনি মহেন্দ্র সিং ধোনিবিহীন মিডল অর্ডার। তবে কেদার যাদবের সঙ্গে দাঁড়িয়ে গিয়েছিলেন ভুবনেশ্বর কুমার। সপ্তম উইকেটে তাদের ৯১ রানের জুটি জয়ের কিছুটা আশা জাগিয়েছিল স্বাগতিকদের।

কিন্তু ৫৪ বলে ৪৬ রান করা ভুবনেশ্বরের আউটের পরপরই কেদার যাদব (৪৪) ফিরে গেলে হারটা সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় ভারতের। যার আনুষ্ঠানিকতা সেরেছেন স্টোইনিস শেষ বলে কুলদীপ যাদবকে বোল্ড করে।

ম্যাচের সঙ্গে সিরিজ জেতার মিশনে বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান বোলাররা। সবচেয়ে সফল অ্যাডাম জাম্পা, ১০ ওভারে ৪৬ রান দিয়ে তার শিকার ৩ উইকেট। আর ২টি করে উইকেট পেয়েছেন প্যাট কামিন্স, ঝাই রিচার্ডসন ও স্টোইনিস। 

Print Friendly, PDF & Email