মায়ের স্মৃতিই অনুপ্রেরণা হবে পাকিস্তানি পেসার আমিরের

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কভারতের বিপক্ষে ম্যাচে প্রয়াত মায়ের স্মৃতিই অনুপ্রেরণা হবে মোহাম্মদ আমিরের। ম্যাচ শুরুর আগে এমনটাই জানিয়েছেন পাকিস্তানের বাঁহাতি বোলার।

চলতি বছরের মার্চে মারা যান আমিরের মা। সংবাদ মাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘মা সবসময়ই আমার সাফল্যের জন্য মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করতেন। প্রতি ম্যাচে আমি যেন পাঁচ উইকেট নিতে পারি মা সেই দোয়াই করতেন।’

আমির বলেন, ‘আমি নিশ্চিত বেহেশত থেকে মা আমার জন্য দোয়া করছেন। তিনি যতদিন বেঁচেছিলেন ততদিন খেলা চলা অবস্থায় সব সময় টিভির সামনে থাকতেন আর আমার জন্য দোয়া করতেন। তিনি সবসময় চাইতেন আমি যেন ম্যাচে পাঁচ উইকেট পাই। আমি যখনই কোনো ম্যাচে পাঁচ উইকেট পাই, আমার কান্না চলে আসে, আমার শুধু মায়ের কথাই মনে পড়ে যায়।’

বিশ্বকাপে চার ম্যাচ খেলে মাত্র তিন পয়েন্ট নিয়ে ব্যাকফুটে পাকিস্তান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়ার  বিপক্ষে হার। আর স্বাগতিক  ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় সরফরাজের দল। আরেক শ্রীলংকার সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি হয় বৃষ্টির কারণে খেলা পরিত্যাক্ত হওয়াতে যে কারণে পাকিস্তান কিছুটা চাপে আছে, স্বীকার করেছেন আমিরও। তবে আজকের ম্যাচে ভারতকে হারাতে আশাবাদ নিয়ে আমির বলেন, ‘আজ আমরা ভারতকে হারিয়ে সেমি ফাইনালের পথে এগিয়ে যাব।’

ভারত পাকিস্থান ম্যাচ যে শুধুই একটি ম্যাচ এবং তাতে কোন যুদ্ধ নেই, সে কথাও বলেন এ পেসার। তার মতে, একজন ক্রিকেটার হিসেবে যেকোনো প্রতিপক্ষকেই সমান গুরুত্ব দেয়া উচিত। একজন বোলার কিংবা ব্যাটসম্যান হিসেবে আপনি যখন মাঠে নামবেন সব প্রতিপক্ষকেই আপনার সমান গুরুত্ব দিতে হবে। কিন্তু ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ এলেই ফ্যান, টেলিভিশন চ্যানেল ও মিডিয়া এমনকি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও এক ধরনের যুদ্ধাবস্থা সৃষ্টি করে ফেলে।

২৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার দারুণভাবে ফিরে এসেছেন ফর্মে। পাকিস্তান শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হেরে গেলেও ক্যারিয়ার সেরা পারফর্ম করেন আমির। ৩০ রানে ৫ উইকেটে নেন এই পেসার, যেই কীর্তি গড়তে পারেননি তার পূর্বসূরী পাকিস্তানের কিংবদন্তী ইমরান খান ও ওয়াসিম আকরামও। এ কারণে আজকের ম্যাচেও পাকিস্তানের ক্রিকেট ভক্তদের প্রত্যাশা বেশি থাকছে এই বাঁহাতির দিকেই।

Print Friendly, PDF & Email