রাজশাহীর কাছে খুলনার হার

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্করংপুর রাইডার্স ও ঢাকা ডায়নামাইটসের কাছে হার। তৃতীয় ম্যাচে এসেও হারের বৃত্ত থেকে বের হতে পারেনি খুলনা টাইটানস। রাজশাহী কিংস তাদের বিপক্ষে প্রথম জয়ের স্বাদ পেয়েছে ৭ উইকেটে।

টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন মাহমুদউল্লাহ। এবারও ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠতে পারেননি। তাতে রাজশাহীকে বড় লক্ষ্য দেওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করে খুলনা। ৯ উইকেটে করে ১১৭ রান।

প্রতিপক্ষ রাজশাহী ১১৮ রানের লক্ষ্য পূরণ করেছে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যে। অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে হাফসেঞ্চুরি করেন। তার দারুণ ইনিংসের কল্যাণে ১৮.৫ ওভারে ৩ উইকেটে ১১৮ রান করে রাজশাহী।

লক্ষ্যে নেমে দ্বিতীয় ওভারে মোহাম্মদ হাফিজ বিদায় নেন। তাইজুল ইসলাম তার প্রথম ওভারে পাকিস্তানি ওপেনারকে ৬ রানে আরিফুল হকের ক্যাচ বানান। এরপর মিরাজ নামেন। মুমিনুল হককে সঙ্গে করে সহজ জয়ের ভিত গড়েন তিনি। তাদের জুটি ছিল ৮৯ রানের।

৪৩ বলে ৪৪ রান করে মুমিনুল ক্যাচ দেন শরীফুল ইসলামকে, উইকেটটি নেন পল স্টারলিং। জয় থেকে ১৮ রান দূরে থাকতে রাজশাহীর ওপেনার মাঠ ছাড়েন। সৌম্য সরকারকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে পারেননি মিরাজ। ৯ রান আগেই তাকে বোল্ড করেন জহির খান। ৪৫ বলে ৬ চার ও ১ ছয়ে ৫১ রান করেন মিরাজ।

১৯তম ওভারের পঞ্চম বলে ডেভিড উইজকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করেন সৌম্য। ১১ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

তার আগে রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে স্টারলিং ও জুনায়েদ সিদ্দিকের ওপেনিং জুটিতে দারুণ শুরু করেছিল খুলনা। কিন্তু হঠাৎ করে দুজনের বিদায়ে ছন্দপতন। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকলে স্কোর বড় করতে পারেনি তারা। জুনায়েদের ২৩ রান ছিল দলের পক্ষে সর্বোচ্চ। ডেভিড মালানের ব্যাটে আসে দ্বিতীয় সেরা ২২ রান।

এই হারে তিন ম্যাচ শেষেও কোনও পয়েন্টের দেখা পেল না খুলনা। তাতে টেবিলে সবার শেষে অবস্থান তাদের। ২ ম্যাচ শেষে ২ পয়েন্ট নিয়ে ছয়ে রাজশাহী।

Print Friendly, PDF & Email