রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে শেখ জামালকে হারালো আবাহনী

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কম্যাচের একদম শুরুতেই এগিয়ে গিয়েছিল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। মাঝে ঘুরে দাঁড়ায় আবাহনী লিমিটেড। পুরো ম্যাচে দুই দল মিলে গোল করে মোট ৭টি। তবে এমন রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে ৪-৩ গোলের জয় নিয়ে শেষ হাসি হেসেছে আবাহনীই।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচের প্রথম মিনিটেই সাখাওয়াত হোসেন রনির ক্রসে আলতো টোকায় লক্ষ্যভেদ করেন শেখ জামালের আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লুসিয়ানো এমানুয়েল পেরেস।

প্রথম গোল হজম করার ৯ মিনিট পরেই সমতায় ফেরে আবাহনী। নাবীব নেওয়াজ জীবনের ফ্রি-কিকে আফগান ফরোয়ার্ড মাসিহ সাইঘানি হেড করে দলকে সমতায় ফেরান। 

২৭তম মিনিটে এগিয়ে যায় আবাহনী। রায়হান হাসানের থ্রো ইন হেডে বিপদমুক্ত করতে গিয়ে নিজেদের জালে বল জড়িয়ে দেন শেখ জামালের ডিফেন্ডার মাঞ্জুর রহমান মানিক।

৩৬তম মিনিটে ঝড়ের কারণে খেলায় সাময়িক ছেদ পড়ে। প্রায় ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট পর খেলা মাঠে গড়ানোর পর প্রথমার্ধের বাকি সময়ে কেউ গোল করতে পারেনি। 

দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলই গোল পেতে মরিয়া চেষ্টা চালায়। আর তাতে শুরুতে সফল হয় আবাহনী। ৬৩তম মিনিটে সানডে চিজোবার পাস থেকে বল পেয়ে শেখ জামালের গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে নিখুঁত শটে গোল করে আবাহনী ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে দেন হাইতিয়ান ফরোয়ার্ড কেরভেন্স বেলফোর্ট।

৭০তম মিনিটে চিজোবার হেড থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের ভেতর থেকে জাল খুঁজে নেন জীবন। ৭৯তম মিনিটে সেইনে বোজানের শট আবাহনীর গোলরক্ষক ফিরিয়ে দিলে ফিরতি শটে ব্যবধান কমান জাকি হোসেন জিকু। 

ম্যাচে ফিরতে মরিয়া শেখ জামাল ৯০তম মিনিটে আরও এক গোল পেয়ে যায়। এবারও গোলদাতা জিকু। কিন্তু ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত ম্যাচটা জিতে যায় আবাহনী। লিগে এই নিয়ে টানা চতুর্থ জয় পেলো ঐতিহ্যবাহী দলটি।

১২ ম্যাচে ১০ জয়ে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে অবস্থান করছে আবাহনী। আর ১১ ম্যাচে ৩ জয়ে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে সাতে শেখ জামাল।

দিনের অন্য ম্যাচে নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে গোলশূন্য ড্র করেছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও টিম বিজেএমসি। পয়েন্ট টেবিলের একদম নিচে থাকা দুই দলের পয়েন্ট যথাক্রমে ৫ ও ৪।

Print Friendly, PDF & Email