লড়াই করেও জিততে পারলো না আফগানিস্তান

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : তীরে গিয়েও তরী ভিড়াতে পারলো না আফগানিস্তান। বৃথা গেল দুই জারদান- দৌলত ও শাপুরের বীরত্ব। শেষ উইকেটে লড়াই চালিয়েও তারা পারেননি হার ঠেকাতে। ২ রানের জয়ে তাই বাধভাঙা উল্লাস জিম্বাবুয়ের।

২০১৯ বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ে ৪৩ ওভারে অলআউট মাত্র ১৯৬ রানে। জবাবে ১৭৭ রানে ৯ উইকেট হারানোর পরও আফগানদের জয়ের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন দৌলত ও শাপুর। শুধু আশা কেন, শেষ দিকে তো জয়ের পাল্লা ভারি ছিল আফগানিস্তানের দিকেই। কিন্তু হলো না। ক্রিকেট দেবতার কলমে লেখা ছিল জিম্বাবুয়ের জয়। তাই ৩ বল আগে আফগানরা অলআউট হয়ে যায় ১৯৪ রানে।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে যে ফর্ম নিয়ে নেমেছিল রশিদ খানরা, সেটা মোটেও পাওয়া যাচ্ছে না। টানা দুই ম্যাচ হেরে কঠিন করে তুলতো বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলার পথ। বিপরীতে ঘরের মাঠের প্রতিযোগিতায় টানা দুই জয়ে ‘বি’ গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে জিম্বাবুয়ে।

বুলাওয়েতে চলেছে বোলারদের দাপট। রশিদ খান (৩/৩৮) ও মুজিব উর রহমানের (৩/৪৯) বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতে পেরেছেন কেবল ব্রেন্ডন টেলর ও সিকান্দার রাজা। টেলর ৮৮ বলে খেলেন ৮৯ রানের ইনিংস। আর সিকান্দারের ব্যাট থেকে আসে গুরুত্বপূর্ণ ৬০ রান।

ব্যাটিংয়ে আলো ছড়ানোর পর বল হাতেও জ্বলে উঠেছিলেন সিকান্দার। তার ঘূর্ণিতেই ভেঙে পড়ে আফগানদের মিডল অর্ডার। তার ৪০ রানে পাওয়া ৩ উইকেটের সঙ্গে ব্লেসিং মুজারাবানির ৪৭ রান খরচায় পাওয়া ৪ উইকেটে সুবিধা করতে পারেনি আফগান ব্যাটসম্যানরা। সতীর্থদের ব্যর্থতার ভিড়ে লড়াই চালিয়েছেন রহমত শাহ (৬৯) ও মোহাম্মদ নবী (৫১)। বাকি সবাই ব্যর্থতার বৃত্তে বন্দী হওয়ায় ১৭৭ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে ফেলে আফগানিস্তান।

জয়টা তখন সময়ের ব্যাপার মনে হচ্ছিল জিম্বাবুয়ের। যদিও সেটা হতে দেননি দৌলত ও শাপুর। দশম উইকেটে ‍চমৎকার পারফরম্যান্সে ব্যাটিং শিখিয়েছেন সতীর্থদের। মাথা ঠাণ্ডা রেখে ব্যাটিং করে দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়েও এলেন তারা। কিন্তু শেষটা রাঙিয়ে নিতে পারলেন না। ব্রায়ান ভিটোরির বলে শাপুর ২৬ বলে ৭ রান করে আউট হলে জয়ের আনন্দে মাতে জিম্বাবুয়ে। বিপরীতে ৩৭ বলে ১০ রানে অপরাজিত থাকা দৌলতের মুখের হতাশা যেন গোটা আফগানিস্তানের ছবি। 

Print Friendly, PDF & Email