শ্রীলঙ্কাকে বড় ব্যবধানেই হারালো অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কঅস্ট্রেলিয়ার দেওয়া ৩৩৫ রানের টার্গেটে শুরুটা অসাধারণ করেছিল শ্রীলঙ্কা। উদ্বোধনী জুটিতে কুশল পেরেরা ও দিমুথ করুনারত্নে মিলে ১৫.৩ ওভারেই ঝড়ো ব্যাটিং করে তুলে নিয়েছেছিলেন ১১৫ রান। তবে এ জুটি ভাঙার পর ব্যাটিং ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে না পারায় ৮৭ রানের বড় ব্যবধানে হারতে হয় লঙ্কানদের।

শনিবার (১৫ জুন) ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস বিশ্বকাপে প্রতিকূল পরিবেশে বিশ্বকাপের ২০তম ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয় শ্রীলঙ্কা। লন্ডনের দ্য ওভালের ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে ৩টায় শুরু হয় ম্যাচটি।

যেখানে অ্যারন ফিঞ্চের দুর্দান্ত সেঞ্চুরির সুবাদে প্রথমে ব্যাট করে ৩৩৪ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করায় অস্ট্রেলিয়া। ফিঞ্চের পাশাপাশি স্টিভেন স্মিথের দারুণ ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে এই স্কোর গড়ে দলটি। জবাবে ৪৫.৫ ওভারে ২৪৭ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা।

৩৩৫ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল পেরেরা ১১৫ রানে জুটি গড়ে বিছিন্ন হন। ৩৬ বলে ৫টি চার ও একটি ছক্কায় ৫২ রান করা পেরেরা মিচেল স্টার্কের বলে বোল্ড হন। তবে দলীয় সর্বোচ্চ ৯৭ রান করেন অধিনায়ক করুনারত্নে। ১০৮ বলে ৯টি চারের সাহায্যে এই ইনিংসি তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসও।

এরপরের গল্পটা শুধুই অজি ফাস্ট বোলারদের। স্টার্ক বিধ্বংসী বল করে তুলে নেন সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট। ৩ উইকেট পান কেন রিচার্ডসন। এছাড়া প্যাট কামিন্স দুটি ও জেসন বেহরেনডর্ফ একটি উইকেট পান।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করা অজিদের হয়ে ডেভিড ওয়ার্নারকে হারানোর ধাক্কা সামলে নেন উইকেটে থাকা অ্যারন ফিঞ্চ এবং ওয়ার্নারের পরিবর্তে উইকেটে আসা ওসমান খাজা। এই দু’জনের ব্যাটে ভর করেই ২২ ওভার ৫ বলে ১০০ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। তবে সেই ওভারের শেষ বলে ধনঞ্জয়া ডি সিলভা তুলে নেন খাজার উইকেটটি। 

ব্যক্তিগত ২৬ রানে বোল্ড আউট হন ডেভিড ওয়ার্নার। তার উইকেটটি নেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। আর তার কিছু পরেই ব্যক্তিগত অর্ধশত পূরণ করেন ফিঞ্চ।

নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৪তম সেঞ্চুরির পাশাপাশি চলমান বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রানের মালিকও বনে গেলেন এই অজি অধিনায়ক(৩৪৩)। ৯৭ বলে তিন অঙ্কের দেখা পান তিনি। ইসুরু উদানার বলে আউট হওয়ার আগে ১৩২ বলে ১৫টি চার ও ৫টি ছক্কায় ১৫৩ করেন এই ডানহাতি। এবারের আসরে ইংল্যান্ডের জেসন রয়ের সঙ্গে যৌথভাবে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ডও গড়লেন তিনি। এছাড়া এটি তার ক্যারিয়ার সেরা রানও। এবছরই পাকিস্তানের বিপক্ষে শারজায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৫৩ রানে অপরাজিত ছিলেন ফিঞ্চ।

এদিন তৃতীয় উইকেট জুটিতে স্টিভেন স্মিথের সঙ্গে ১৭৩ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ফিঞ্চ। তবে দারুণ খেলতে থাকা স্মিথ ৫৯ বলে ৭টি চার ও একটি ছক্কায় ৭৩ করে লাসিথ মালিঙ্গার বলে বোল্ড হন।

ব্যক্তিগত তিন রানের শন মার্শকে ফিরিয়ে নিজের দ্বিতীয় উইকেট তুলে নেন উদানা। পরে নিজের দশম ও শেষ ওভারে অ্যালেক্স ক্যারি ও প্যাট কামিন্সকে রান আউট করেন এই বাঁহাতি বোলার।

লঙ্কান বোলারদের মধ্যে ডি সিলভা ও উদানা দুটি করে উইকেট তুলে নেন। মালিঙ্গা লাভ করে একটি উইকেট।

দারুণ ব্যাট করা ফিঞ্চের হাতে ওঠে ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

Print Friendly, PDF & Email