সাকিবদের টানা তৃতীয় হার, প্লে অফে কলকাতা

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কজিতলেই প্লে অফের টিকিট, এই সমীকরণ সামনে রেখে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে হারাল কলকাতা নাইট রাইডার্স। সবার আগে প্লে অফ নিশ্চিত করা সাকিব আল হাসানের দল হারল ৫ উইকেটে। আর অষ্টম জয়ে তৃতীয় স্থান নিশ্চিত করল কলকাতা। এনিয়ে টানা তৃতীয় ম্যাচ হারল হায়দরাবাদ। তারপরও ১৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষেই আছে তারা।

আগে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ১৭২ রান করে হায়দরাবাদ। ১৯.৪ ওভারে ৫ উইকেটে ১৭৩ রান করে কলকাতা। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে তারা প্লে অফের টিকিট কাটল। আর মাত্র একটি দল বাকি থাকল পরের পর্বে ওঠার অপেক্ষায়। যে লড়াইয়ে আছে রাজস্থান রয়্যালস, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

১৭৩ রানের লক্ষ্যে নেমে কলকাতাকে ঝড়ো সূচনা এনে দেন সুনীল নারিন। ক্রিস লিনকে নিয়ে মাত্র ৩.৪ ওভারে ৫২ রান করে আউট হন ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যান। মাত্র ১০ বলে ৪টি চার ২টি ছয়ে ২৯ রান করেন নারিন।

দুর্দান্ত এই শুরুর পর লিন ও রবিন উথাপ্পার ৬৭ রানের জুটি কলকাতার জয়ে শক্ত ভিত গড়ে দেয়। ম্যাচ সেরা লিন ৪৩ বলে ৪টি চার ও ৩টি ছয়ে ৫৫ রানে আউট হন। হায়দরাবাদে অভিষেক ম্যাচে কার্লোস ব্র্যাথওয়েট তার প্রথম উইকেট পান উথাপ্পাকে ৪৫ রানে ফিরিয়ে। জয়ের বাকি কাজ সম্পূর্ণ করেন দিনেশ কার্তিক। ২২ বলে ২৬ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জেতান কলকাতা অধিনায়ক।

হায়দরাবাদের পক্ষে দুটি করে উইকেট নেন ব্র্যাথওয়েট ও সিদ্ধার্থ কৌল। সাকিব ১ উইকেট নেন ৩ ওভারে ৩০ রান দিয়ে।  

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করেও শেষদিকে বিপদের সম্মুখীন হয় হায়দরাবাদ। শেষ ওভারে ৪ উইকেট হারায় তারা। তার আগে শ্রীবৎস গোস্বামীর (৩৫) সঙ্গে ৭৯ রানের জুটি গড়েছিলেন শিখর ধাওয়ান। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন দ্বিতীয় উইকেটে যোগ করেন ৪৮ রান। ৩৬ রানে আউট হন নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যান।

৩৮ বলে হাফসেঞ্চুরি করার পরের বলেই ক্রিজ ছাড়তে হয় ধাওয়ানকে। ৩৯ বলে তার ৫০ রানের ইনিংসে ছিল ৫ চার ও ১ ছয়। পরের ব্যাটসম্যানরা নিয়মিত সাজঘরে গেছেন। 

শেষ ওভারের প্রথম বলে মনীষ পান্ডেকে (২৫) আউট করেন প্রাসীদ কৃষ্ণ। ডানহাতি এই মিডিয়াম পেসার চতুর্থ ও পঞ্চম বলে সাকিব আল হাসান ও রশিদ খানকে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিকের সুযোগ তৈরি করেন। শেষ বলে উইকেট হারিয়েছে হায়দরাবাদ, কিন্তু হ্যাটট্রিক হয়নি প্রাসীদের। ভুবনেশ্বর কুমারকে রানআউট করেছেন দিনেশ কার্তিক। সাকিব ৭ বলে ২টি চারে ১০ রান করেন।

৪ ওভারে ৩০ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন প্রাসীদ। 

Print Friendly, PDF & Email