সাদমানের ব্যাটে জয় দিয়ে শেষ শাইনপুকুরের

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কসম্মিলিত চেষ্টায় খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতিকে কম রানে থামিয়ে আসল কাজটা করেছিলেন বোলাররা। সাদমান ইসলামের দৃঢ়তায় বাকিটা সহজেই সেরেছে শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব। জয় দিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শেষ করেছে আফিফ হোসেনের দল।

প্রিমিয়ার লিগের একাদশ রাউন্ডে ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে ১৫ রানে জিতেছে শাইনপুকুর।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার ৪৮ ওভার ২ বলে ১৯০ রানে গুটিয়ে যায় খেলাঘর।

শাইনপুকুরের ইনিংসের ২৯তম ওভারে বৃষ্টি নামলে দলটি পায় ৪৭ ওভারে ১৮৪ রানের নতুন লক্ষ্য। ৪১ ওভার শেষে আবার বৃষ্টি নামলে আর খেলা সম্ভব হয়নি। সে সময়ে শাইনপুকুরের স্কোর ছিল ১৬৫/৬, ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে প্রয়োজন ছিল ১৫১ রান।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় খেলাঘর। কিছুটা প্রতিরোধের চেষ্টা করেছিলেন অমিত মজুমদার। চারটি চারে ৩৭ রান করা খেলাঘর অধিনায়ককে বিদায় করেন আফিফ।

শেষের দিকের এক ছক্কা ও দুই চারে ৪০ রানের দায়িত্বশীল ইনিংসে দলকে দুইশ রানের কাছে নিয়ে যান মাসুম খান।

শাইনপুকুরের পেসার দেলোয়ার হোসেন ৩ উইকেট নেন ২৭ রানে। দুটি করে উইকেট নেন হামিদুল ইসলাম ও আফিফ।

রান তাড়ায় উন্মুক্ত চাঁদের সঙ্গে ৫৪ রানের জুটিতে দলকে ভালো শুরু এনে দেন সাদমান। ছয়টি চারে ৩৪ বলে ৩৪ রান করে ভারতীয় ব্যাটসম্যান চাঁদ ফিরলে ভাঙে শুরুর জুটি।

এক প্রান্ত আগলে রেখে দলকে এগিয়ে নেন ওপেনার সাদমান। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ১১২ বলে চারটি চার ও একটি ছক্কায় করেন ৬৪ রান। তার বিদায়ের পর দলকে কক্ষপথে রাখেন ধীমান ঘোষ। অভিজ্ঞ এই কিপার-ব্যাটসম্যান অপরাজিত থাকেন ৩১ রানে।

লড়াকু ফিফটির জন্য ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন সাদমান।

১১ ম্যাচে পাঁচ জয় ও এক টাইয়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে থেকে লিগ শেষ করে শাইনপুকুর। ছয় পয়েন্ট নিয়ে নয় নম্বরে থেকে লিগ শেষ করল খেলাঘর।

Print Friendly, PDF & Email