সোহাগকে বহিস্কার করার দাবিতে সাবেক তারকা ফুটবলারদের প্রতীকী অবস্থান

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক, জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার প্রাপ্ত ফুটবলার ও বাফুফের তিন তিনবার নির্বাচিত সহ-সভাপতি বাদল রায়কে মাস খানিক আগে টেলিফোনে বাফুফের বেতন ভুক্ত সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ বাফুফে তে না আসার হুমকি দেন।

এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ সোমবার (৯জুলাই) দুপুরে সোহাগকে বহিস্কার ও চাকুরিচ্যুত করার দাবিতে বাফুফে ভবনের প্রধান গেটের সামনে সাবেক তারকা ফুটবলাররা প্রতীকী অবস্থান করেন।

এরআগে গত ৭জুন, ২০১৮ বাদল রায় এর ঘটনার প্রতিবাদে বাফুফে ভবনে অবস্থান সহ সোহাগকে বহিস্কার করার দাবি জানিয়ে ৭দিনের সময় দিয়ে স্বারক লিপি দেন ফুটবলাররা।

কিন্তু বাফুফে সভাপতি সালাউদ্দিন ও তার কার্যনির্বাহী কমিটি সোহাগের বিরুদ্ধে কোন রকম শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নিয়ে তাকে স্ব-অবস্থানে রেখেছেন।

বাফুফের এ আচরণে ক্ষুদ্ধ সাবেক ফুটবলাররা। এরই প্রতিবাদে সোমবার বাফুফে ভবনের প্রধান গেটে অবস্থান সহ অতিসত্তর সোহাগকে চাকুবিচ্যুত ও বহিস্কারের দাবি করেন।

প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের অধিনায়ক জাকারিয়া পিন্টু, গোলাম সরোয়ার টিপু, ওয়াহিদুজ্জামান খান পিন্টু, আব্দুর গাফফার, হাসানুজ্জামান খান বাবলু, আশরাফ উদ্দিন আহমেদ চুন্নু, শেখ মোহাম্মদ আসলাম, ইমতিয়াজ সুলতান জনি, আবুল হোসেন, শহিদ উদ্দিন আহমেদ সেলিম, মো: সুলতান, আরমান মিয়া, আব্দুল জলিল, সালাউদ্দিন, শামীম, সহ আরো অনেকে।

কর্মসূচিতে মিরপুর সোনালী অতিত ক্লাব ও নারায়নগঞ্জ সোনালী অতিত ক্লাবসহ নারী ফুটবলাররাও এ অবস্থান কর্মসূচিতে যোগদেন।

বক্তিতায় সকল ফুটবলাররা সোহাগের বহিস্কার ও চাকুবিচ্যুত করার দাবি জানিয়েছেন বাফুফের কাছে।

সেই সাথে দেশের ফুটবলের এমন করুণ দশার জন্য জবাব চান তারা। সাবেক ফুটবলাররা বলেন, বাদল রায়কে অপমান করা আর দেশের সকল ফুটবলারকে অপনার করা একই কথা। বিশ্বকাপ চলাকালীন সময়ের মধ্যে যদি সোহাগকে অপসারণ করা না হয় তাহলে আগামীতে সারা দেশের ফুটবলার ও সংগঠকদের নিয়ে আরো বৃহৎ আন্দোলন গড়ে তোলা হবে হুশিয়ারী দেন সাবেক ফুটবলাররা।

উল্লেখ যে মাস খানিক আগে ফোনে সোহাগ বাদল রায়কে বাফুফে ভবনে না আসার জন্য হুমকি দেন। এই ঘটনার পর বাদল রায় ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য ওয়ারী থানায় বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায় একটি জিডি করেন।

ঘটনা মিডিয়ার মাধ্যমে জানাজানি হওয়ার পর তোলপাড় শুরু হয় দেশের ফুটবল অঙ্গন ও সাবেক ফুটবলরারদের মধ্যে।

Print Friendly, PDF & Email