সড়ক দুর্ঘটনার কারণে অকালেই চলে গেলেন সাবেক জাতীয় ফুটবলার তানভীর

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক শেষ পর্যন্ত মৃত্যুর কাছে হার মানতে হলো সাবেক জাতীয় ফুটবলার তানভীর চৌধুরীকে। ২০১৫ সালের ১৯ মে নাটোরের বনপাড়ায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় মাথায় মারাত্মকভাবে আঘাত পেয়েছিলেন এই উইঙ্গার।

জীবন্মৃত হয়েই বেঁচেছিলেন এত দিন। তিন বছরের বেশি সময় ধরে ‘ক্লিনিক্যাল ডেথ’ তানভীর মঙ্গলবার (৯অক্টোবর) চলেই গেলেন।

দুর্ঘটনার পর রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন ছিলেন। দীর্ঘ চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা কঠিনই হয়ে পড়েছিল তাঁর পরিবারের জন্য। বাড়িতেই কাটিয়েছেন জীবনের শেষ দিনগুলি।

নিথর শরীর নিয়ে কেবল চেয়ে থাকতেন। মঙ্গলবার সকালে শ্বাসকষ্ট শুরু হলে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। দিন দশেক ধরে খাওয়া-দাওয়াও ছেড়ে দিয়েছিলেন। হাসপাতালে নেওয়ার আধা ঘণ্টার মধ্যেই তিনি চলে যান না ফেরার দেশে।

বয়স হয়েছিল ৪০ বছর। রেখে গেছেন স্ত্রী ও দুই কন্যাসন্তান। সড়ক দুর্ঘটনার বলি তানভীরের এই অকালমৃত্যু মানতে পারছেন না ফুটবল অঙ্গনের কেউই।

দারুণ প্রতিভাবান এই ফুটবলার ১৯৯৯ সালে জাতীয় ফুটবল লিগের সেরা খেলোয়াড় হয়েছিলেন। ২০০০ সালে ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের দলে সুযোগ পেয়েছিলেন। জাতীয় দলের ক্যারিয়ারটা কোনো কারণে খুব বড় করতে পারেননি। ২০০২ সালের পর আর জাতীয় দলে সুযোগ পাননি।

খেলোয়াড়ি জীবনে ঢাকা আবাহনী, চট্টগ্রাম আবাহনী, মুক্তিযোদ্ধা, ব্রাদার্স ও শেখ রাসেলে খেলেছেন। ১৯৯৫ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত ছিল তাঁর ক্যারিয়ারের ব্যাপ্তি।

Print Friendly, PDF & Email