হাত মেলানো নিয়ে উত্তপ্ত সরফরাজ ও ম্যাক্সওয়েল

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কহারারেতে গতকাল (৮জুলাই) ২০১৮ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৬ উইকেটের জয় নিশ্চিত হওয়ার পরই মাঠে দৌড়ে ঢুকলেন সরফরাজ আহমেদ।

অপরাজিত থাকা সতীর্থ দুই ব্যাটসম্যান শোয়েব মালিক-আসিফ আলীকে অভিনন্দন জানালেন পাকিস্তান অধিনায়ক। দুই আম্পায়ার, এমনকি অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়দের সঙ্গেও হাত মেলালেন সরফরাজ। সবই ঠিক আছে। গোলটা বাধল গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে।

ম্যাচ শেষে শোয়েব মালিক, দুই আম্পায়ার ও সতীর্থ ঝায় রিচার্ডসনের সঙ্গে হাত মেলান ম্যাক্সওয়েল। কিন্তু কাছেই হাত বাড়িয়ে দেওয়া সরফরাজকে এড়িয়ে যান। ম্যাক্সওয়েল ইচ্ছে করেই হাত মেলাননি সরফরাজের সঙ্গে?

এ ঘটনা নিয়ে খবর প্রকাশ হয়েছে একাধিক সংবাদমাধ্যমে। ব্যাটিংয়ের সময়ই ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে কথার লড়াই হয় সরফরাজের। ম্যাচ শেষে হাত না মেলানো, এমনকি ম্যাচ শেষে সতীর্থ ব্যাটসম্যানকে নিয়ে মাঠ ছাড়ার সময় ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে ফের বাক্য বিনিময় পাকিস্তান অধিনায়কের দুইয়ে দুইয়ে চার মিলিয়ে বলা হচ্ছে নিশ্চিত দুজনের ঝামেলা হয়েছে!

নইলে সরফরাজ একা একা কেন দুই সতীর্থকে অভিনন্দন জানাতে ওভাবে দৌড়ে মাঠে ঢুকবেন? আর পাকিস্তান অধিনায়ক হাত বাড়িয়ে দেওয়ার পরও ম্যাক্সওয়েল সেটি এড়িয়ে যাবেন?

গত মার্চে বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় তোলপাড় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) খেলোয়াড়দের আচরণ নিয়ে এখন অনেক সতর্ক। শুধু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া কেন, কদিন আগে ডাবলিনে আইসিসির বার্ষিক সম্মেলনে খেলোয়াড়দের আচরণবিধি আরও কড়াকড়ি করা হয়েছে। মাঠে কারও উদ্দেশে বাজে মন্তব্য করলে, ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ কিংবা প্রতারণা করলে কড়া শাস্তির নিয়ম করা হয়েছে।

ম্যাক্সওয়েল অবশ্য বুঝতে পেরেছেন তাঁর পক্ষ থেকে ঘটনার সমাপ্তি না টানলে বিপাকে পড়তে হতে পারে। অস্ট্রেলীয় অলরাউন্ডার চটজলদি টুইট করে তাই নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছেন, ‘কাল জেতায় পাকিস্তানকে অভিনন্দন। ফখর জামান ও শোয়েব মালিককে থামানো যায়নি!…ম্যাচ শেষে যে ঘটনাটা দেখা গেছে, সেটা অখেলোয়াড়সুলভ আচরণ হিসেবে দেখানো হয়েছে। যেটা আমি মোটেও করি না। আমার তরফ থেকে এটা একেবারেই অনিচ্ছাকৃত’।

Print Friendly, PDF & Email