হারতে হারতে অবশেষে জয়ের মুখ দেখলো মাশরাফিরা

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : টানা পাঁচ ম্যাচে হার। এরপর নিজেদের ওপরই কি আর বিশ্বাস থাকে? কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের হয়েছিল সেই দশা। গতবারের চ্যাম্পিয়নরা কিনা এবার প্রথম পাঁচ ম্যাচ থেকে পেল না একটি পয়েন্টও! তবে কাঙ্ক্ষিত জয়টি এল আজ শনিবার।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে রাজশাহী কিংসকে ৩২ রানে হারিয়ে এবারের বিপিএলে প্রথম জয় পেয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস।

কুমিল্লার ৫ উইকেটে করা ১৫২ রানের জবাবে রাজশাহীর ওপেনার মুমিনুল হকের ব্যাট থেকেই যা একটু জবাব পাওয়া গেছে। ৪৩ বলে ৫৩ রান করেছেন এক ছক্কা আর পাঁচ বাউন্ডারিতে। বাকি ব্যাটসম্যানরা এতটাই ফ্লপ যে সবার সম্মিলতি সংগ্রহই ৫২ রান।

রাজশাহীর ইনিংসের পঞ্চম ওভারে জোড়া আঘাত আনেন কুমিল্লার সোহেল তানভীর। পরপর দুই বলে ফিরিয়ে দেন ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিক আর সাব্বির রহমানকে। পরে মেহেদি হাসান মিরাজ আর ফরহাদ রেজার উইকেট দুটি নিয়ে পাকিস্তানি এই পেসারের বোলিং বিশ্লেষণ ৩-০-১৮-৪। স্কোর ২৭ রানে থাকতে প্রথম দুই উইকেট পড়ার পর রাজশাহী একই রানে দুই উইকেট হারিয়েছে আরও দুবার।

দলকে ৯১ রানে রেখে বিদায় নিয়েছেন মুমিনুল ও ড্যারেন স্যামি। ১০৫ রানের সময় পড়েছে সামিত প্যাটেল ও মেহেদির উইকেট। রাজশাহী কিংস শেষ ছয় উইকেট হারিয়েছে মাত্র ২৯ রানে। পাঁচ ম্যাচে এটি তাদের চতুর্থ হার।

জয়ের বাইরে কুমিল্লার জন্য অনুপ্রাণিত হওয়ার মতো আরেকটি ব্যাপার, টুর্নামেন্টে আজ দ্বিতীয়বারের মতো দেড় শ পেরোল তাদের ইনিংস। আগে ব্যাট করে দেড় শ পার হওয়া অবশ্য এটাই প্রথম। মূল কৃতিত্ব কুমিল্লার হয়ে কালই প্রথম খেলতে নামা রায়ান টেন ডেসকাট ও সোহেল তানভীরের। ১১১ রানে পঞ্চম উইকেট পড়ার পর ৪১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন এই দুই ভিনদেশি ক্রিকেটার।

কুমিল্লার শেষ পাঁচ ওভারের রানও এটাই। ১৫ বলে অপরাজিত ২১ করেছেন ডেসকাটে। বল হাতে সফল তানভীর করেছেন ১৫ বলে অপরাজিত ১৫। অলরাউন্ড পারফরম্যান্স ম্যাচসেরার পুরস্কারও এনে দিয়েছে তাঁকে।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ব্যাটিং অর্ডারে বড় পরিবর্তন আনে এই ম্যাচে। ইমরুল কায়েস ও লিটন দাসকে মিডল অর্ডারে নামিয়ে এনে ইনিংস শুরু করতে পাঠানো হয় নাজমুল হোসেন ও খালিদ লতিফকে। বিপিএলে কাল প্রথম খেলতে নামা খালিদ তৃতীয় ওভারে ফিরে গেলেও ৪০ বলে ৪১ করেছেন নাজমুল।

চারে নামা নিয়মিত ওপেনার ইমরুলের সঙ্গে ৪৩ রানের জুটি গড়েছেন ১৮ বছর বয়সী এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া ব্যাটিং করেছেন ইমরুলও। পাঁচ বাউন্ডারিতে করেছেন ২৫ বলে ৩৪ রান।

Print Friendly, PDF & Email
শেয়ার