অঘটনের অপেক্ষায় রাশিয়া, জিততে চায় স্পেন

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কস্বাগতিক হয়েই যেন খোলস ছেড়ে বের হয়েছে রাশিয়া। গ্রুপ পর্বের উদ্বোধনী ম্যাচে আগুনে পারফরম্যান্স দেখিয়ে রাশিয়া প্রথমবার খেলছে নকআউট পর্বে। হ্যাঁ, প্রথমবারই।

শেষবারটি হয়েছিল সোভিয়েত ইউনিয়ন যখন টিকে ছিল। ৩২ বছর পর নক আউটে পৌঁছাতে পেরে অঘটনের অপেক্ষায় রয়েছে স্বোরনাইয়ারা। শেষ ষোলোর লড়াইয়ে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্পেনের বিপক্ষে রাত ৮টায় মাঠে নামবে রাশিয়া।

অঘটনের অপেক্ষায় থাকলেও স্পেনের বিরুদ্ধে ফল খুব ভালো নয় রাশিয়ার। ১০ বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে একবারই জয় তাদের। ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভাঙনের পর দুটিতেই জয় স্পেনের। ড্র বাকি ৪টিতে। রাশিয়ার বিপক্ষে রক্ষণটাও খুব বেশি আগলে রাখতে পারেনি অতীতে। তিন খেলাতেই গোল হজম করেছে ১০টি।

২০০৮ ইউরোতে দুটি ম্যাচে গোল খেয়েছে ৭টি। অবশ্য সবশেষ নভেম্বরে প্রীতি ম্যাচের ফল প্রেরণা জোগাচ্ছে তাদের। ম্যাচটি ড্র হয়েছে ৩-৩ গোলে। তাই নিজেদের পিছিয়ে রাখছেন না রাশিয়ান স্ট্রাইকার আরতিম জিউবা। তার কথাতেই স্পষ্ট অঘটনের অপেক্ষায় রয়েছে রাশিয়া, ‘জিততে পারলে তো মিরাকল হবে।

যে কোনও দলই নিজেদের ভালো দিনে যে কাউকে হারিয়ে দিতে পারে। তবে আমাদের পা মাটিতেই রয়েছে। দুটি ম্যাচ জিতলেও উরুগুয়ের কাছে ৩-০ গোলে হারের পর সেটা মাথায় রয়েছে বেশ ভালোভাবেই।’

ম্যাচটা শক্তিশালী স্পেনের বিরুদ্ধে। সেটা ভালো করেই জানা আছে রাশিয়া কোচ স্তানিসলাভ চেরচিয়েসোভের। তাই প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে সর্বোচ্চ চেষ্টার কথাই বললেন তিনি, ‘স্পেন যেভাবে খেলে তা আমাদের কাছে পরিষ্কার। ওদের বিপক্ষে ফাঁক বের করা কঠিন। তবে আমাদের চেষ্টা করতে হবে।’

শেষ ষোলোর ম্যাচটি বাঁচা মরার লড়াই। হারলেই বাদ- তাই জয় ছাড়া ভিন্ন কিছু ভাবছে না স্পেন। দলটির ডিফেন্ডার দানি কারভাহাল মনে করছেন তেমনটা, ‘এখন থেকে ম্যাচটি বাঁচা-মরার লড়াই। এখন ড্রয়ের জন্যে আপনি খেলতে পারবেন না। হয় জয়, নাহলে বাড়ি যাও।’

Print Friendly, PDF & Email