অলিম্পিকেই প্রথম চুম্বন ফেডেরার-মিরকার

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : হারের বেদনায় দুজনেই গেমস ভিলেজের কোণে বসে। দুজনেরই দুজনকে ভালোলাগে, পছন্দ করে। কিন্তু সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যা লাগে সেটা তখনও কিছুই হয়নি। কথা হচ্ছে ২০০০ সিডনি অলিম্পিকের। রজার ফেডেরার নামটা তখনও টেনিস বিশ্বের কাছে অপরিচিত।

ব্রোঞ্জ মেডেল নির্ধারণ করার ম্যাচে হেরে অলিম্পিক পদক হাতছাড়া হওয়ার বেদনায় ফেডেরার কার্যত ভেঙে পড়েছেন। অন্যদিকে, অল্প বয়সের মিরকাও ডাবলসে হেরে হতাশায় রয়েছেন। দুজনেই ঠিক করলেন হতাশা কাটতে একটু হেঁটে আসবেন।সিডনি অলিম্পিকে একসঙ্গে সেই হাঁটাটাই ফেডেরার-মিরকার সম্পর্কটা আলাদা মাত্রা দিল। তারপর তো ইতিহাস।

ফেডেরার-মিরকার প্রেম কাহিনি তো যে কাউকে ঈর্ষায় ফেলে দেওয়ার পক্ষে যথেষ্ট। ফেডেরার বললেন, ওই সিডনি অলিম্পিকের সেদিনই দুজনে দুজনের খুব কাছে এসেছিলেন। মিরকাকে সেদিন তিনি প্রথম চুম্বন করেছিলেন বলে জানান সুইস টেনিস কিংবদন্তি। এবার রিও অলিম্পিকে চোটের জন্য খেলতে পারছেন না। কিন্তু অলিম্পিক এলেই সেই স্মৃতি তাঁর মনে পড়ে বলে জানালেন।

 অলিম্পিক মানে কী শুধু খেলা, পদক, আর হার-জিত্‍। না, না একেবারেই নয়। অলিম্পিক হল বিশ্বের মেলা। দেশে-দেশে, জাতিতে-জাতিতে, শুত্রু-মিত্রর এক অদ্ভূত মিলনস্থল হল অলিম্পিক। এবারের অলিম্পিকে অংশে নেবে ২০৮টি দেশের অ্যাথলিট। হ্যাঁ, ঠিক পড়েছেন, ২০৮টি দেশ। তা এই অলিম্পিক নিয়ে নানা গল্প, নানা ঘটনা শোনা যায়। অনেক সময় তা হার মানায় রূপকথাকেও।

Print Friendly, PDF & Email