অলিম্পিকে গিয়ে জাহাজে আশ্রয় নিল মার্কিন বাস্কেটবল দল!

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : শুরু হওয়ার আগেই রিও অলিম্পিকের অব্যাবস্থাপনা নিয়ে সমালোচনার শেষ নেই। গেমস ভিলেজ নিয়ে রয়েছে বিস্তর অভিযোগ। শোয়ার বিছানা থেকে শুরু করে, খোলা ইলেক্ট্রিক তার এমনকী নোংরা টয়লেট নিয়ে অসন্তোষ চরমে। এমন সময় এক ঘটনা ঘটিয়ে ফেললেন মার্কিন বাস্কেটবল দল।

কোন অভাব-অভিযোগের দিকে না গিয়ে থাকা-খাওয়া-বিশ্রামের জন্য আস্ত এক জাহাজ ব্যবস্থা করে ফেলেছেন তারা! মার্কিন বাস্কেটবল দলটি অলিম্পিকের সবচেয়ে ধনী দল, যাদের অধিকাংশ সদস্যই কোটিপতি। তাদের ভাড়া করা বিলাসবহুল ‘সিলভার ক্লাউড’ জাহাজটি রিওর বন্দরে পৌঁছে গেছে। বিশ্বের হাতে গোনা সিক্স স্টার জাহাজের মধ্যে ‘সিলভার ক্লাউড’ অন্যতম। ৫১৪ ফুট লম্বা জাহাজটির ৯টা ডেক আছে।

যাত্রীবহন ক্ষমতা ২৯৬ জন। জাহাজটিতে একটি লাইব্রেরি, বিউটি সালো, ক্যাসিনো, চারটি রেস্তোরাঁ আছে। জাহাজটির সুইটের ভাড়া সপ্তাহে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা। মার্কিন বাস্কেটবল টিম রিওতে পৌঁছনোর কথা ৩ অগস্ট। তার পর ৫০ জন অ্যাথলেট আর সাপোর্ট স্টাফদের এই জাহাজেই থাকার কথা। কিন্তু গেমস ভিলেজ ছেড়ে জাহাজেই কেন? মার্কিন বাস্কেটবল টিমের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘‘আমরা ভিলেজে থাকব না ঠিক করেই নিয়েছিলাম।

অলিম্পিকের প্রস্তুতির জন্য সেটা ভাল হবে না বলেই আমাদের ধারণা। প্লেয়ারদের মৌসুমে প্রচুর খেলতে হয়েছে। এখন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চায় সব প্লেয়ারই। তাই এই ব্যবস্থা।’’ অবশ্য এর আগে ২০০৪ আথেন্স অলিম্পিকে বিলাসবহুল জাহাজ কুইন মেরি টু-তে ছিল মার্কিন বাস্কেটবল দল।

তার পর যদিও লন্ডন আর বেইজিং অলিম্পিক চলাকালীন হোটেলে থাকার ব্যবস্থা হয়েছিল তাদের। কিন্তু হোটেলে থাকার প্রধান সমস্যা হল সেখানে শোয়া-বসার ঝক্কি। বিশেষ করে বিছানার মাপের। সেখানে তাদের অভিযোগ ছিল বিছানাগুলো নাকি সাত ফুট লম্বা প্লেয়ারদের মাপের পাওয়া যায় না।

Print Friendly, PDF & Email