‘এবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলে আর কখনও নয়’

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : বিশ্বকাপে খেলা নিয়েই শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু বাছাইয়ের শেষ ম্যাচে লিওনেল মেসির দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে ইকুয়েডরের বিপক্ষে জিতে রাশিয়া যাওয়া নিশ্চিত করেছে তারা। এবার শেষটা রাঙাতে একসঙ্গে উজ্জীবিত মেসিসহ দলের সিনিয়র খেলোয়াড়রা। সাফল্যের শীর্ষে ওঠার যে এটাই তাদের শেষ সুযোগ!

মেসির আর্জেন্টিনা ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ শিরোপা হাতছাড়া করে একেবারে নাগালে পেয়েও। তারপর ২০১৫ ও ২০১৬ সালের কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেও হার মানতে হয় চিলির কাছে। তিনটি ফাইনালে হার হৃদয় ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে তাদের। বার্সেলোনায় অগণিত শিরোপা জেতা মেসি তার আক্ষেপের কথা আবারও বললেন আর্জেন্টিনার টেলিভিশন অনুষ্ঠান ‘লা করনিসা’তে, ‘এসব ম্যাচের পর আমি অনেক বার কেঁদেছি। কারণ ফাইনাল হারে আমার দেশের স্বপ্ন পূরণ হয়নি, এগুলো অনেক অর্থবহ ম্যাচ ছিল।’

পাঁচটি ব্যালন ডি’অর জেতা মেসি আরও যোগ করেছেন, ‘ওগুলো (তিন ফাইনাল) ছিল কঠিন আঘাত। তিনটি ফাইনালে উঠলেও আমাদের জন্য ভালো কিছু হয়নি।’ ৩০ বছর বয়সী মেসি বুঝতে পারছেন, তার ও দলের বেশ কয়েকজন সতীর্থের এটাই শেষ সুযোগ। আগামী জুনে ৩১ বছর পূর্ণ হবে তার এবং বিশ্বকাপ শুরু হতেই সের্হিয়ো আগুয়েরো, গনসালো হিগুয়েইন, আনহেল দি মারিয়া, নিকোলাস ওতামেন্দি ও হাভিয়ের মাসচেরানোদের কারও কারও বয়স ৩০ বা তারও বেশি হয়ে যাবে।

দলের বেশির ভাগ সিনিয়র খেলোয়াড়দের জন্য আর কখনও শিরোপা জেতার সুযোগ আসবে না মনে করছেন মেসি। আক্ষেপ নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমরা ফলাফলের ওপর নির্ভরশীল। আমাদের মনে হচ্ছে, এবার চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলে আর কখনও হতে পারব না।’

১৯৮৬ সালের পর প্রথম বিশ্বকাপ শিরোপা পুনরুদ্ধারে আইসল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া ও নাইজেরিয়ার গ্রুপে পড়েছে আর্জেন্টিনা। সব বাধা পেরিয়ে এবার শিরোপা হাতে নিতে আশাবাদী মেসি, ‘আমি কল্পনা করি, আমরা ফাইনালে (১৫ জুলাই মস্কোতে) ট্রফি হাতে নিচ্ছি। এটা (বিশ্বকাপ জয়) আমার দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন। বিশ্বকাপ খুব কাছে এলেই আমার এই স্বপ্ন আরও দৃঢ় হয়। ২০১৪ সালের ফাইনালটা ছিল বেদনার কারণ খুব কাছে ছিলাম আমরা। বিশ্বকাপ জিততে চাই আমি।’

Print Friendly, PDF & Email