ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া প্রধানের পদত্যাগ

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কঅস্ট্রেলিয়ার বল টেম্পারিং কাণ্ডে অবশেষে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিলেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) চেয়ারম্যান ডেভিড পিভার। অথচ গত বৃহস্পতিবার বোর্ডের নতুন সভায় তিন বছরের জন্য পুননির্বাচিত হয়েছিলেন।

বল টেম্পারিং ইস্যুতে কয়েক দিন আগে প্রকাশিত হয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সাংগঠনিক পর্যালোচনা প্রতিবেদন। সিএ-এর সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল নিয়ে করা এই প্রতিবেদনের পর থেকেই চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

অথচ এই প্রতিবেদন প্রকাশের পর থেকে বোর্ডের নীতিগত অবস্থান নিয়েই প্রশ্ন উঠেছিলো। তখন পিভারকে সরে দাঁড়ানোর কথাও বলা হয়েছিলো। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে প্রভাবশালী এই ব্যক্তি তখন সরবেই বলেছিলেন, বল টেম্পারিং কাণ্ডে মোটেও বিব্রত নন তিনি।

পিভার বিব্রত হননি ঠিক। তবে তার আগে একই ঘটনায় পদত্যাগের মিছিল ছিলো ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ায়। কোচ ড্যারেন লেম্যান, প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।

সেই পর্যালোচনা প্রতিবেদনে টেম্পারিং কাণ্ডের জন্য ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ‘ঔদ্ধত্য’ ও ‘কর্তৃত্বমূলক’ মনোভাবকেই সামনে আনা হয়েছে। বলা হয়েছে তাদের যে কোনও মূল্যে জেতার মানসিকতাই এমন পরিস্থিতি উদ্ভবের জন্য দায়ী! তাই প্রশ্ন ছুঁড়ে দেওয়া হয়েছিলো, এমন কাণ্ডে কেন প্রশ্নবিদ্ধ হবেন না ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বস্থানীয়রা? পিভার সরে যেতে চাননি। কিন্তু ৬ অঙ্গরাজ্যের তিনটি তার চেয়ারম্যান থাকার বিষয়টি স্বীকার না করায় একদিন পর অতিরিক্ত বোর্ড সভাতেই নিজের পদত্যাগ পত্র দিয়ে দিলেন তিনি।

পিভারের ডেপুটি আর্ল এডিংসকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তবে স্থায়ীভাবে তাকে এই পদের জন্য বেছে নেওয়া হবে না বলেও জানা গেছে। দায়িত্ব পেয়ে ভাঙা গড়ার মাঝে চলা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অসম্পূর্ণ কাজ চালিয়ে নেওয়ার কথা বললেন এডিংস, ‘আমরা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার পুনর্গঠন প্রক্রিয়া চালিয়ে নিতে মুখিয়ে আছি। বোর্ড ক্রিকেট সম্প্রদায়ের আস্থা ফিরিয়ে আনতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। আমরা ও নির্বাহী সদস্য যারা আছে তারা ক্রিকেটকে আরও শক্তিশালী করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’

Print Friendly, PDF & Email