খুব কষ্ট নিয়ে ওয়েঙ্গারের বিদায়

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কগত এপ্রিলে জানিয়ে দিয়েছেন, আর্সেনালে লম্বা কোচিং ক্যারিয়ার শেষ হচ্ছে এই মৌসুমে। বিদায়টা গৌরবের সঙ্গে নিতে পারতেন আর্সেন ওয়েঙ্গার। কিন্তু ইউরোপা লিগ সেমিফাইনালে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের কাছে ৩-২ গোলের অগ্রগামিতায় হেরে যাওয়ায় রাঙাতে পারলেন না শেষটা। মনে খুব কষ্ট নিয়ে ২২ বছরের আর্সেনাল অধ্যায় শেষ করছেন এই ফরাসি কোচ।

রূপকথার মতো বিদায় নিতে চেয়েছিলেন ওয়েঙ্গার। সেমিফাইনালের প্রথম লেগে ১০ জনের অ্যাতলেতিকোর সঙ্গে ১-১ গোলে ড্রর পর ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোতে দ্বিতীয় লেগ ১-০ গোলে হেরেছে গানাররা।

এতে করে আর্সেনালে তিনটি প্রিমিয়ার লিগ ও ৭টি এফএ কাপ শিরোপা জেতা ওয়েঙ্গারের আক্ষেপ থেকে গেল একটি ইউরোপিয়ান শিরোপা না পাওয়ার। আগামী ১৬ মে ফাইনাল খেলে দুই যুগের অধ্যায়ে ইতি টানতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেটা হলো না।

ইউরোপিয়ান ফাইনাল নয়, প্রিমিয়ার লিগে হাডার্সফিল্ড টাউনের বিপক্ষে ম্যাচই হতে যাচ্ছে ৬৮ বছর বয়সী কোচের শেষ। তাই দুঃখের শেষ নেই ওয়েঙ্গারের মনে, ‘অনেক কষ্ট লাগছে। খুবই দুঃখ হচ্ছে। এমন বিদায়ে ক্লাব ছেড়ে যাওয়া খুব বেদনাদায়ক। এই ব্যথা ভুলতে সময় লাগবে। তারপর আমার ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবব। এখন কোনও পরিকল্পনা নেই।’

ক্লাবের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে আর্সেনালের কোচ বলেছেন, ‘আমিও দলের মতো খুব হতাশ। ১৮০ মিনিট ধরে লড়াই করে এমন ফলাফল মেনে নেওয়া কঠিন। শেষ অংশে আমাদের মধ্যে কিছুটা ঘাটতি ছিল। দুই ম্যাচে আমরা অনেক সুযোগ পেয়েছি, আমাদের হতাশার কারণ তাই আছেই।’

লিওঁতে ফাইনালে অ্যাতলেতিকোকে শিরোপা জয়ী দেখতে পাচ্ছেন ওয়েঙ্গার, ‘অ্যাতলেতিকোকে অভিনন্দন এবং ফাইনালের জন্য শুভ কামনা রইল। আজকের রাতের বিজয়ীরাই এই প্রতিযোগিতার ফেভারিট। তারা রক্ষণে দারুণ। বিশেষ করে দিয়েগো গোদিন দুর্দান্ত। তাদের সেরা ডিফেন্ডার রয়েছে।’

Print Friendly, PDF & Email