ঘরের মাঠে আবাহনীর হতাশার ড্র!

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক এএফসি কাপের ‘ই’ গ্রুপের খেলায় বুধবার (২৫এপ্রিল) ২০১৮ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে এক গোলের লিড নিয়ে সেই তকমাটি ধরে রেখেও জিততে পারেনি স্বাগতিক ঢাকা আবাহনী লিমিডেট।

দুর্দান্ত খেলে ভারতের আইজল ফুটবল ক্লাব সেই গোল শোধ করে পয়েন্ট কেড়ে নেয়। এএফসি কাপের ‘ই’ গ্রুপের এই খেলাটি শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে ড্র হয়।

আবাহনীর এই ড্র যেন হার এবং আইজলের এই ড্র যেন জয়ের সমান! খেলা দেখতে আসা সমর্থকরা বেশ হতাশই হন জেতা ম্যাচে এভাবে আবাহনী ড্র করায়।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বির্বণ হলো আবাহনীর সুনীল স্বপ্ন। পয়েন্ট তলানিতে থাকা ‘পঁচা শামুক’ আইজলেই কিনা পা কাটলো তারা!

এই ড্র’তে মূলপর্বে খেলার সম্ভাবনা ফিকে হয়ে এসেছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নদের। অথচ তিন পয়েন্ট পেলেই গ্রুপ রানাসআপ হয়ে পরের রাউন্ডে যাবার সম্ভাবনাটা আরও বেড়ে যেতো।

আগামী ২মে মালদ্বীপের মালেতে নিউ রেডিয়েন্টের বিপক্ষে খেলবে আকাশী-নীলরা। আবাহনীর শেষ ম্যাচ ১৬ মে ঢাকায় ব্যঙ্গালুরু এফসির বিপক্ষে।

এ আসরে আগের তিন ম্যাচে আইজল এফসি কোন পয়েন্টই সংগ্রহ করতে পারেনি। বুধবার ড্র করে তারা সংগ্রহ করলো প্রথম পয়েন্ট। চার ম্যাচে আবাহনীর সংগ্রহ চার পয়েন্ট। অবস্থান আগের মতোই চার দলের মধ্যে তৃতীয়।

বুধবার নিউ রেডিয়েন্ট ২-০ গোলে বেঙ্গালুরুকে হারিয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের এক নম্বর স্থানটি দখল করে নিয়েছে। সমান (৪) ম্যাচে বেঙ্গালুরুরও সমান পয়েন্ট। কিন্তু গোল তফাতে পিছিয়ে থাকায় তারা নেমে গেছে দুই নম্বরে।

কিছুদিন আগে ভারতে গিয়ে তাদেরই ৩-০ গোলে হারিয়ে এসেছিলো ঢাকা আবাহনী। অথচ নিজেদের ঘরের মাঠে তারা যে খেলা উপহার দিয়েছে তাতে করে ম্যাচ হেরে যাবারই কথা ছিলো।

ম্যাচ দেখে মনে হয়েছে আইজলই যেন হোম ম্যাচ খেলছে। তারা আসলে যেভাবে খেলেছে, তাতে করে তাদের না জেতাটাই ছিল বিস্ময়কর। পুরো ম্যাচে আবাহনীর বল নিয়ন্ত্রণ ছিল মাত্র ৪১ শতাংশ, আর আইজলের চিল ৫৯ শতাংশ। এ থেকেই আঁচ করা যায় ম্যাচে আধিপত্য বেশি ছিল আসলে কোন্ দলের।

৩০ মিনিটে বক্সে আবাহনীর এমেকাকে ফাউল করেন লালরামমুনমাওয়ে। পেনাল্টি পায় আবাহনী। এমেকা ডার্লিংটনের শট জড়ায় জালে (১-০)।

৬৫ মিনিটে গোল শোধ করে ম্যাচে সমতা আনে আইজল। ডান প্রান্ত দিয়ে সতীর্থের পাসে বক্সে বল পেয়ে খুব সহজেই বল জালে জড়ান এন্ডরেই ইওনেসকো (১-১)। ম্যাচের অন্তিম মূহূর্তে আবাহনীর সানডে চিজোবা বল পাঠিয়েছিলেন আইজলের জালে। কিন্তু অফসাইডের ফাঁদে পড়ে গোল বঞ্চিত হয় আবাহনী।

শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্র করে মাঠ ছাড়ে দুই দল। 

Print Friendly, PDF & Email