ডায়েট মেন্যুতে অ্যালোভেরা রাখবেন কেন?

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ককেবল রূপচর্চাতেই নয়, স্বাস্থ্যরক্ষাতেও অ্যালোভেরা অনন্য। এটি ওজন কমাতে সাহায্য করে। ডায়েট লিস্টে অ্যালোভেরা নিয়মিত রাখলে পারেন আরও নানাবিধ সুফল। জেনে নিন ডায়েট মেন্যুতে কেন এবং কীভাবে রাখবেন অ্যালোভেরা।

অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে ভরপুর: অ্যালোভেরাতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে। এটি ডায়েট চার্টে থাকলে যেমন সুস্থ থাকবে শরীর, তেমনি সুস্থ থাকবে ত্বক ও চুল।

হজমশক্তি বাড়ায়: হজমশক্তি বাড়াতে অ্যালোভেরার জুড়ি মেলা ভার। অ্যালোভেরাতে থাকা ল্যাক্সেটিভ উপাদান পেট পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। ফলে খাবার হজম হয় দ্রুত। একই সঙ্গে এটি অন্ত্রের খারাপ ব্যাকটেরিয়ার পরিমাণ কমায় এবং ভালো ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বাড়ায়। এতে স্বাভাবিকভাবেই হজম ক্ষমতা বাড়ে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে: সমীক্ষা বলছে, টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আত্রান্তরা নিশ্চিন্তে এই রস পান করতে পারেন। এতে ইনসুলিনের ক্ষরণ বাড়ে। নিয়ন্ত্রণে থাকে শর্করার পরিমাণ।

ওজন কমায় দ্রুত: অ্যালোভেরাতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লমেটারি এবং ডিটক্সিফাইং উপাদান ওজন কমাতে সাহায্য করে। শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করে এটি।  

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: অ্যালোভেরায় থাকা ভিটামিন সি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

ডায়েটে অ্যালোভেরা যেভাবে রাখতে পারেন

  • জুস হিসেবে পান করতে পারেন অ্যালোভেরা। এজন্য পাতার কিছুটা অংশ কেটে নিন। তারপর ওপরের সবুজ অংশ সরিয়ে চামচ দিয়ে বের করে নিন জেল। হলদেটে আঠা যেন না থাকে। এবার জেল ভালো করে ধুয়ে নিয়ে ডাবের পানি বা নরমাল পানির মধ্যে দিয়ে, অল্প মধু মিশিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। চাইলে পছন্দের ফলের রসও মেশাতে পারেন।
  • সালাদে মিশিয়ে খেতে পারেন এটি। এজন্য পাতা ভালো করে ধুয়ে নিন। আঠা যেন না থাকে। এবার ছোট ছোট টুকরোয় কেটে মিশিয়ে নিন সালাদের সঙ্গে।
  • অ্যালোভেরার জুস বরফের ট্রেতে জমিয়ে রাখতে পারেন। শরবতের সঙ্গে মিশিয়ে পান করতে পারবেন।
Print Friendly, PDF & Email