ড্রাফটের আগ মুহূর্তে চিটাগং ভাইকিংসে মুশফিক

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কষষ্ঠ বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফটের আগে মুশফিককে ঘিরেই ছিল আলোচনা। সেই আলোচনা বেশিদূর গড়ায়নি। বিপিএলের ড্রাফট শুরু হওয়ার আগেই মুশফিকের ব্যাপারে সিদ্ধান্তে পৌঁছে গেছে চিটাগং ভাইকিংস।

রাজশাহী ছেড়ে দেওয়ায় চিটাগং ভাইকিংসের সামনে মুশফিককে দলে নেওয়ার সুযোগ ছিল। কিন্তু চট্টগ্রামের দলটি দেশসেরা উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানকে শুরুতে নিতে রাজি ছিলো না। আচমকা ড্রাফট শুরুর আগে দলটি মুশফিককে নেওয়ার ব্যাপারে তাদের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলও তা মেনে নিয়েছে।

মুশফিকের অন্তর্ভুক্তির পর কপাল পুড়েছে আফগান ক্রিকেটার নাজিবুল্লাহ জাদরানের। নিয়ম অনুযায়ী চারজন খেলোয়াড়কে রিটেইন করাতেই তাকে বাদ দিতে হয়েছে চিটাগং ভাইকিংসকে।

‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরিতে আগেই ঢাকা ডায়নামাইটসে সাকিব আল হাসান, খুলনা টাইটানসে মাহমুদউল্লাহ, রংপুর রাইডার্সে মাশরাফি বিন মুর্তজা, সিলেট সিক্সার্সে লিটন দাস, রাজশাহী কিংসে মোস্তাফিজুর রহমান এবং কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জার্সিতে তামিম ইকবাল খেলবেন।

নিয়ম অনুযায়ী বিপিএলের প্রতিটি দল দেশি-বিদেশিসহ গতবারের চার জনকে ধরে রাখার পাশাপাশি দুইজন করে বিদেশি খেলোয়াড় ড্রাফটের বাইরে থেকে অন্তর্ভুক্ত করতে পেরেছে।

গত আসরে মুশফিক আইকন হিসেবে ছিলেন রাজশাহী কিংসে। কিন্তু এবার তাকে দলে রাখেনি রাজশাহী, বরং আইকন হিসেবে নিয়েছে মোস্তাফিজুর রহমানকে। গতবার ১২ ম্যাচে ১৪৬ রান করা মুশফিককে তাই অপেক্ষায় থাকতে হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email