তামিমের আজ খেলা নিয়ে ধুম্রজাল

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক আম্পায়ার নেমে গেছেন। টসও হয়ে গেছে। দু`দলের ক্রিকেটাররা মাঠের বাইরে সাইড লাইনে দাঁড়িয়ে। দর্শকরাও উন্মুখ হয়ে অপেক্ষা করছেন। অথচ খেলা শুরু হচ্ছে না। শেরেবাংলার গ্র্যান্ডস্ট্যান্ডের সামনে হুড়োহুড়ি, হৈ চৈ, সোরগোল।

সিলেট কর্মকর্তারা গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডের সামনে ছুটে এসেছেন। সিলেট ফ্র্যাঞ্চাইজির সাথে চিটাগাং ভাইকিংস অধিনায়ক তামিম ইকবালের অনাকাঙ্খিত কথা কাটাকাটি ও বচসায় এক হতচ্ছিরি অবস্থা- মনে আছে? আরে ওই যে গত বিপিএলে এই শেরেবাংলায় ঘটেছিল অনাকাঙ্খিত ঘটনাটি।

সিলেটের ইংলিশ ক্রিকেটারদের ছাড়পত্র আসা নিয়ে ধোঁয়াশায় ছিল চিটাগাং। যাদের ছাড়পত্র নিয়ে আপত্তি, তাদের খেলতে নামতে দেখেই বিগড়ে গিয়েছিল চিটাগায় শিবির। তাদের প্রবল আপত্তির মুখে বাধল বড় ধরনের হ-য-ব-র-ল অবস্থা। মনে করে দেখুন, আগেরবার বিপিএলের প্রথম লেগে চিটাগাং ভাইকিংস আর সিলেট রয়্যালসের ওই ম্যাচের ঘটনাটি!

এখন পশ্ন হলো, আজও কী গত বছরের ওই ঘটনার পূনরাবৃত্তি হবে? কাকতালীয়ভাবে এবারো দৃশ্যপটে চিটাগাং ভাইকিংস অধিনায়ক তামিম ইকবাল। এবারের প্রেক্ষাপট ও বাতাবরণ অবশ্য ভিন্ন। শুক্রবার শেরেবাংলায় একটা অস্ফুট প্রশ্ন, তামিম ইকবাল কি আজ (শনিবার) বরিশাল বুলসের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ খেলতে পারবেন?

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের শেষ ম্যাচে প্রাইম দোলেশ্বরের সাথে অখেলোয়ড়োচিত আচরণের জন্য এক লাখ টাকা অর্থ দণ্ডের পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটে এক ম্যাচের বহিস্কার হয়েছিলেন চিটাগাং অধিনায়ক। যেহেতু এরপর তিনি আর ঘরোয়া ক্রিকেটের কোন আসরে অংশ নেননি। আজ বরিশারের বিপক্ষে ম্যাচটিই হবে ওই সাসপেন্ড হওয়া খেলার ঠিক পরের ম্যাচ।

যদিও বিসিবির দেয়া বিজ্ঞপ্তিতে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের কথা উল্লেখ ছিল না। শুধু বলা ছিল ক্রিকেট মাঠে শৃঙ্খলা বিরোধী আচরণের জন্য তামিম ইকবালকে এক লাখ টাকা জরিমানা ও ঘরোয়া ক্রিকেটে এক ম্যাচে বহিস্কার করা হলো।

প্রসঙ্গত: উল্লেখ্য গত ১৩ জুন বিকেএসপি তিন নম্বর মাঠে প্রাইম দোলেশ্বরের সাথে ম্যাচে তেমন আচরণের জন্য অর্থ জরিমানার পাশাপাশি এক ম্যাচের বহিস্কার হয়েছিলেন তামিম।

বিসিবির দুই পরিচালক নাজমুল করিম টিংকু, শেখ সোহেল, বোর্ডের প্রধান ম্যাচ রেফারি রকিবুল হাসান এবং  বিসিবি টেকনিক্যাল কমিটির অন্যতম সদস্য আতহার আলীর সমন্বয়ে গড়া বিশেষ কমিটি ওই শাস্তির সুপারিশ করলে বোর্ড সভায় তা অনুমোদন করা হয়।

এখন সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ (শনিবার) তামিম ইকবালের খেলার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা। ওই কমিটির অন্যতম সদস্য এবং বিসিবি ম্যাচ রেফারি কমিটি প্রধান রকিবুল হাসান এ সম্পর্কে সোজা সাপটা মন্তব্য করতে দ্বিধা প্রকাশ করেন। শুক্রবার রাতে জাগো নিউজের সাথে আলাপে রকিবুল দু রকম কথা বললেন।

তার প্রথম কথা, `হ্যাঁ যেহেতু  তামিম আর কোন ঘরোয়া আসরে অংশ নেয়নি, আর  সাসপেন্ড হওয়ায় বিপিএলই তার প্রথম আসর-  তাই নিয়ম অনুযায়ী তার কালকের ম্যাচ খেলার কথা নয়।’

এই বলে রকিবুল আবার এক প্রশ্ন তোলেন, উল্টো জানতে চান, আচ্ছা বিসিবির প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কি ঘরোয়া ক্রিকেটে ঠিক পরের ম্যাচ সাসপেন্ড থাকার কথা বলা আছে? ‘নাহ তা তো বলা নেই।’

রকিবুল বলেন, আমি তো জানি ঠিক পরের ম্যাচ সাসপেন্ড থাকার কথা বিসিবির দেয়া বিজ্ঞপ্তিতে ছিল না। তাই একটা ফাঁক-ফোকর থেকে গেছে। বলা আছে তামিম ঘরোয়া ক্রিকেটের এক আসরে এক ম্যাচ সাসপেন্ড। কোন আসর, সেই আসরের প্রথম ম্যাচ কিনা? তার উল্লেখ যেহেতু নেই। তাই তামিমের শনিবারের খেলার ওপর নিষেধাজ্ঞা আনা কঠিন।

এদিকে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক জানিয়েছেন, নাহ তামিমের খেলা নিয়ে কোন সংশয় নেই। বিপিএল গভর্নিং কমিটি সদস্য সচিব মল্লিক জাগো নিউজের সাথে আলাপে বলেন, এটা ঠিক তামিম এক ম্যাচ সাসপেন্ড।

তবে সেটা ঘরোয়া ক্রিকেটের কোন ৫০ ওভারের ফরম্যাটের অন্য কোন টুর্নামেন্ট কিংবা প্রিমিয়ার লিগে। বিপিএলে নয়। কারণ বিপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট। ঘরোয়া ক্রিকেট আসর হলেও এর নিয়ম কানুন অন্য সব ঘরোয়া আসরের মত না। তাই তামিমের খেলা নিয়ে সংশয়ের কিছু আছে বলে মনে করি না।’

Print Friendly, PDF & Email