দেশের দ্রুততম মানব ইসমাইল, মানবী শিরিন

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কআরও একবার ট্র্যাকের রাজা হলেন মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন আর রাণীর মুকুট মাথায় তুললেন শিরিন আক্তার। জাতীয় অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে পুরুষ এককে ১০০ মিটার স্প্রিন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ইসমাইল আর নারী এককে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন শিরিন।

সবাইকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন যখন দেশের দ্রুততম মানবের খেতাব ধরে রাখলেন, তখন সবার চোখ মেয়েদের ১০০ মিটার স্প্রিন্টে। শিরিন, শরীফা খাতুন, কবিতা রায়, বর্ষা আর রুমকিরা তখন স্টার্টিং পয়েন্টে দৌড় শুরুর অপেক্ষায়।

শিরিনই সেরা হবেন- চারদিক থেকে এমন ফিসফাসের মধ্যেই দৌড় শুরু। ১১.৮০ সেকেন্ডের মধ্যেই দৌড় শেষ শিরিনের। তার পরপরই ফিনিশিং মার্ক টাচ করলেন শরীফা-কবিতারা। জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ ও সামার মিট মিলিয়ে টানা ১১ বার দেশের দ্রুততম মানবী হয়ে নিজের রেকর্ডটাকে আরও সমৃদ্ধ করলেন সাতক্ষীরার যুবতি শিরিন আক্তার।

গত বছর জানুয়ারিতে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের ১০০ মিটারের দুই সেরা অ্যাথলেট এবারও ধরে রাখলেন নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব। তবে দ্রুততম মানবী শিরিন নিজের টাইমিংয়ের উন্নতি করলেও পেছনে হেটেছেন ইসমাইল।

চট্টগ্রামে ঘাসের ট্র্যাকে ইসমাইল সময় নিয়েছিলেন ১০.৪০ সেকেন্ড, এবার ১০.৫৫। শিরিন চট্টগ্রামে দৌড় শেষ করেছিলেন ১২.১০ সেকেন্ডে, ঢাকায় ১১.৮০। তবে দুটিতেই হ্যান্ডটাইমিং। যার কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই আন্তর্জাতিক পর্যায়ে।

দৌড়ের শুরুতে শিরিনকে পেছনে ফেলেছিলেন শরীফা-কবিতারা। কিন্তু ৬০-৭০ মিটারের পর থেকে অন্যদের পেছনে ফেলে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর শিরিন ফিনিশিং মার্কে পৌঁছে যান সবার আগে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শরীফা খাতুন ১২.২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে দ্বিতীয় ও বাংলাদেশ আনসারের কবিতা রায় ১২.৪০ সেকেন্ড সময় নিয়ে তৃতীয় হয়েছেন।

ছেলেদের ১০০ মিটারে মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন প্রথম হয়েও টাইমিং নিয়ে কিছুটা অতৃপ্তি প্রকাশ করেছেন। কারণ, চট্টগ্রামের চেয়ে তিনি সময় নিয়েছেন ০০.১৫ সেকেন্ড বেশি। গত বছর নেপালে এসএ গেমসে ইসমাইলের টাইমিং ছিল ১০.৭৬ সেকেন্ড। এ নিয়ে টানা তৃতীয়বার দেশের দ্রুততম মানব হলেন কুমিল্লার মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন।

ছেলেদের ১০০ মিটার স্প্রিন্টে দ্বিতীয় হয়েছেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর রকিবুল হাসান। তিনি সময় নিয়েছেন ১০.৬০ সেকেন্ড। তৃতীয় হয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো. হাসান মিয়া। তার টাইমিং ১০.৭০ সেকেন্ড।

শুক্রবার সকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী ৪৪ তম জাতীয় অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপ। যথারীতি হ্যান্ডটাইমিং এবং ছেড়া টার্ফেই চলছে দেশের সবচেয়ে বড় এই অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপ।

শনিবার বিকেলে জাতীয় অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে ৬৪ জেলা, ৮ বিভাগ, বিশ্ববিদ্যালয়, শিক্ষাবোর্ড, বিকেএসপি, বিজেএমসিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৪৫০ জন (পুরুষ ও মহিলা) অ্যাথলেট ও ১৫০ জন কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করবেন।

তিন দিনব্যাপি এই প্রতিযোগিতায় পুরুষ ও মহিলা ২টি গ্রুপে ৩৬ ইভেন্টে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে পুরুষদের ২২ ও মহিলাদের ১৪টি ইভেন্ট।

Print Friendly, PDF & Email