পেলে-আলীর কাতারে থাকতে চাই: বোল্ট

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : বক্সিংয়ের রাজা যুক্তরাষ্ট্রের মোহাম্মদ আলী ক্লে, ফুটবলের রাজা ব্রাজিলের পেলে, স্প্রিন্টের রাজা কে? অনেকেই হয়তো এই প্রশ্নের উত্তরে উসাইন বোল্টের নামটা বলে ফেলবেন। তবে এখনই নিজেকে ‘রাজা’ ভাবছেন না জ্যামাইকার এই গতি দানব! রিও অলিম্পিকে ঐতিহাসিক ‘ট্রিপল ট্রিপল’ জিতেই আলী-পেলের কাতারে থাকতে চান তিনি।

ধারাবাহিকভাবে এভাবে একক আধিপত্য ধরে রাখা অসম্ভবই বটে। তবে বোল্ট বলেই সেটা সম্ভব হয়েছে। গত ১৩টি প্রতিযোগিতার মধ্যে ১২টিতেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তিনি। অলিম্পিকে যা করছেন, তা সত্যিই অসাধারণ! ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিকে শুরু। আধিপত্য চলছে রিও অলিম্পিকেও। চীনে অনুষ্ঠিত ওই আসরের ১০০, ২০০ ও ৪*১০০ মিটার রিলেতে সোনা জিতেছিলেন উসাইন বোল্ট। পুনরাবৃত্তি ঘটিয়ে ২০১২ সালে লন্ডন অলিম্পকেও তিনটি সোনা নিজের ঝুলিতে জমা করেন জ্যামাইকান এই গতি দানব।

বেইজিং ও লন্ডন অলিম্পিকের পর রিওতেও ট্রিপল সোনা জয়ের পথেই রয়েছেন তিনি। ১০০ মিটারে সোনা জিতেছেন আগেই, আজ শুক্রবার ২০০ মিটারেও সোনা জিতলেন জ্যামাইকার গতি দানব। চলতি আসরের সামনের ইভেন্টটিতেও (৪*১০০ মিটার রিলে) নিজেকে উজাড় করে দিয়ে সোনা জিততে মরিয়া তিনি।

নিজেকে ভালোভাবেই প্রমাণ করেছেন বোল্ট। নতুন করে জাত চেনানোর বাকি নেই তার। সেরাদের একজন হয়েই থাকতেন চান এই তারকা দৌড়বিদ। দৌড় শেষে তিনি বলেন, ‘আমার প্রমাণ করার আর কিছু নেই। আমি সেরাদের একজন হতে চেষ্টা করেছি। মোহাম্মদ আলী ও পেলের কাতারে থাকতে চেয়েছি। আশা করছি এই দৌড়গুলোর পর আমি তাদের কাতারে থাকতে পারব।’

Print Friendly, PDF & Email