প্রথম দল হিসেবে শেষ চার নিশ্চিত হলো ঢাকার

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : এবার বিপিএলে সবচেয়ে বেশি দর্শক হলো বোধ হয় আজ শুক্রবার। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুটি দল খেলছে, দর্শকের ঢল তো নামবেই। তবে উপচে পড়া গ্যালারির বেশির ভাগই ঢাকা ডায়নামাইটসের দর্শক। শেষ পর্যন্ত তাদের হতাশও হতে হয়নি।

ঢাকা জিতেছে ৬ উইকেটে। এই জয়ে প্রথম দল হিসেবে শেষ চার নিশ্চিত হলো ঢাকার। ১১ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিশ্চিত করল, শেষ ম্যাচটা হারলেও ঢাকা থাকবে সেরা দুইয়ে।

তামিমের ৭৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের পরও চট্টগ্রাম করেছিল ৬ উইকেটে ১৩৪। শেষ দিকে যে রানই বাড়িয়ে নিতে পারল সেভাবে। শোয়েব মালিকের ৩৩ ছাড়া আর কেউ সেভাবে রানই তুলতে পারলেন না। আন্দ্রে রাসেল ও আলউদ্দিন বাবুর ঝোড়ো ইনিংসে ১০ বল হাতে রেখেই সেই লক্ষ্য পেরিয়ে গেছে ঢাকা। পঞ্চম উইকেটে ৩৩ বলে ৫১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন এ দুজন। ওপেনার সাঙ্গাকারার ৩৫–ও রেখেছে বড় ভূমিকা।
রাসেল ১৮ বলে ৩১ ও বাবু ২৭ বলে ৩৩ রানে অপরাজিত ছিলেন। চিটাগংকে অবশ্য মূল্য দিতে হয়েছে বাজে ফিল্ডিংয়েরও। দুটি ক্যাচ আর স্টাম্পিংয়ের সুযোগ ছেড়ে তারা। তবে চট্টগ্রামকে সবচেয়ে পোড়াল শেষ তিন ওভার। এ সময় যে তারা ১৮ বলে রান তুলতে পেরেছে মাত্র ১৫! অথচ টি–টোয়েন্টিতে শেষ ৩ ওভারে হাতে উইকেট থাকলে ৪০–৪৫ রান প্রত্যাশা করে দলগুলো। তামিমের গড়ে দেওয়া ভিত্তিটা কাজেই লাগাতে পারল না তারা।
তামিম যেন একই সঙ্গে বিস্ফোরক আর ধারাবাহিক ব্যাটিংয়ের প্রতিজ্ঞা করে নেমেছেন। বিপিএলে নিয়মিতই রানের ফোয়ারা ছুটছে তামিমের ব্যাটে। ৬২* ও ৬৬*—এর পর ৫৯ বলে ৭৪। ফিফটির হ্যাটট্রিক হয়ে গেছে চিটাগং ভাইকিংস অধিনায়ক! ১১ ম্যাচে ৪২৫ রান করে আছেন সবার ওপরে। এখনো পর্যন্ত তাঁর নামের পাশে পাঁচটি ফিফটি, ছুঁয়েছেন বিপিএলে এক আসরে সবচেয়ে বেশি হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ড।
তামিম-শোয়েব মালিকের জুটি যেভাবে এগিয়েছে, রানটা আরও বড় হতে পারত। দুজন চতুর্থ উইকেট যোগ করেছেন ৫৬ বলে ৮৬ রান। ৭ রানে সানজামুল ইসলামের হাতে ক্যাচ দিয়ে বেঁচে যাওয়া মালিক শেষ পর্যন্ত আউট হয়েছেন ৩৩ রানে। তামিম উইকেটে থাকার পরও ১৩ ওভার চিটাগংয়ের রান রেট ছিল ছয়ের নিচে। তামিম নিজের মতো চেষ্টা করেছেন। ৫৯ বলে করেছেন ৭৪। কিন্তু শোয়েবের ২৫ বলে ৩৩ বাদে বাকি ৬ ব্যাটসম্যান মিলে যে করতে পারলেন মোটে ২০ রান।
টুর্নামেন্টে সবচেয়ে শক্তিশালী দুটি দলের কালকের লড়াইকে তো অনেকেই বলছে ‘ফাইনালের রিহার্সেল’! এই মহড়ায় জিতে চিটাগং ও অন্যদ দলগুলোকে বড় বার্তাই দিয়ে রাখল ঢাকা।
Print Friendly, PDF & Email