ফেলপসের রূপকথার অলিম্পিক শেষ হচ্ছে এবার

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : সবকিছুর শেষ আছে। মাইকেল ফেলপসেরও শেষের ঠিক কাছে দাঁড়িয়ে। রিও অলিম্পিকের অষ্টম দিনে আবার জলে নামছেন সাঁতারের কিংবদন্তি। আর মাত্র একটি লড়াই, তারপরই শেষ হচ্ছে তার রূপকথার অলিম্পিক যাত্রা। যে যাত্রায় আছে কেবল ইতিহাস গড়ার গৌরব।

৩১ বছরের ফেলপস যা করেছেন তা কারো পক্ষে আর কি করা সম্ভব হবে? এটি তার পঞ্চম অলিম্পিক। ২০০০ সিডনি অলিম্পিকে অংশ নিলেও ১৫ বছরের ফেলপস সেবার কিছু জিততে পারেননি। পরের তিন অলিম্পিকে ১৮টি সোনা, ২টি রূপা ও ২টি ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। ইতিহাসের সেরা অলিম্পিয়ানের অমরত্ব নিশ্চিত হয়েছিল। ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকের পর অবসরে গেলেন।

একবছর পর আবার ফিরলেন। জীবনে কোনো আক্ষেপ রাখতে চাননি বলেই এই ফেরা। এবং রিওতে গিয়ে এর মধ্যে ৫ ইভেন্টের চারটিতে জিতেছেন সোনা, একটিতে রুপা। ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে গেল তিন অলিম্পিকে সোনা জিতেছিলেন। কিন্তু সিঙ্গাপুরের ২১ বছরের অজানা-অচেনা জোসেফ স্কুলিংয়ের কাছে হারতে হয়েছে। তাই পারফেক্ট হলো না। তবে আরেকটি সোনার হাতছানি সামনে।

রবিবার (বাংলাদেশ সময়) ৪X১০০ মিটার মিডলে তার ২৩তম সোনা জয়ের ইভেন্ট। এই ইভেন্টে অলিম্পিকেই কখনো হারেনি যুক্তরাষ্ট্র দল। এটাই অলিম্পিকে ফেলপসের শেষ সাঁতার হয়ে থাকবে। কিন্তু এই তো ৩৫ বছর বয়সেও তার স্বদেশি অ্যান্থনি ইরভিন জিতলেন ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলের সোনা। ফেলপস কি সিদ্ধান্ত বদলাবেন? হাসেন জলমানব বা জলদানব। “না। শেষ।

আমি আরো কয়েক বছর থাকছি না।” ফেলপস চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানান তৃপ্তির সাথেই, “এটা আমার জীবনের খুব বিশেষ সপ্তাহ হয়ে থাকবে। ভাবতে কেমন অবাক লাগে যে ২০ বছর আগে আমি সাঁতার শিখেছিলাম এবং আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সব থেমে যাবে।”

Print Friendly, PDF & Email