বাফুফের কাছে পাঁচ ক্লাব কোন টাকা পাবে না : সালাম মুর্শেদী

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কাছ থেকে এখনও ক্লাবগুলো বিগত বছরের পাওনা অর্থ বুঝে পায়নি। এজন্য গত ২৫ মে বকেয়া পাওনা পরিশোধে বাফুফেকে ৩০ মে পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল আট ক্লাব। এ সমস্যা সমাধানে শনিবার (২৭মে) বাফুফের নির্বাহী কমিটির এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সেখানে সভা শেষে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘হিসাব বিভাগের কাগজপত্র ঘেঁটে দেখেছি শেখ জামাল ধানমন্ডি, চট্টগ্রাম আবাহনী, আরামবাগ, ফরাশগঞ্জ এবং সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব কোন টাকা পাবে না বাফুফের কাছে। তারপরও বলবো এই ৫ ক্লাব যদি দাবি করে তাদের বকেয়া আছে, তাহলে তাদের হিসাব বিভাগ যেন প্রমাণাদি নিয়ে আমাদের হিসাব বিভাগে যোগাযোগ করে। সেক্ষেত্রে তাদের বকেয়া দিয়ে দেয়া হবে।

ক্লাবগুলোর পাওনা প্রসঙ্গে সালাম মুর্শেদীর মন্তব্য, ‘যারা সভা করে পাওনা পরিশোধের আলটিমেটাম দেয় তাদের অনেক ক্লাবতো আমাদের কাছে কোনো টাকাই পাবে না।’

পূর্বের বকেয়া ও নতুন কিছু দাবি-দাওয়া নিয়ে একাট্টা হয়ে গত বৃহস্পতিবার প্রিমিয়ার লিগের মোহামেডান, শেখ জামাল, চট্টগ্রাম আবাহনী, ব্রাদার্স, মুক্তিযোদ্ধা, বিজেএমসি, আরামবাগ ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব বাফুফেকে ৩০ মের মধ্যে পাওয়ানা পরিশোধ ও নতুন দাবি পূরণের নিশ্চয়তা না দিলে লিগ বর্জনের হুমকিও দিয়েছিল। তাদের নতুন দাবিগুলোর মধ্যে অন্যতম লিগের অংশগ্রহণ ফি ৫০ লাখ টাকা করা। তারই প্রেক্ষিতে বাফুফে শনিবার জরুরী সভা শেষে এমন ঘোষণা দিল।

বাফুফে আরও জানিয়েছে আগামী লিগের আগে পৃষ্ঠপোষক থেকে যে টাকা পাওয়া যাবে তার সিংহভাগ ক্লাবগুলো পাবে। অন্য কোন দেশে ক্লাবগুলোকে অংশগ্রহণের জন্য টাকা দেয়া হয় না উল্লেখ করে সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘এটা পেশাদার ফুটবলের সঙ্গে যায় না।

পেশাদার ফুটবলের প্রধান শর্তই হচ্ছে হোম এ্যান্ড এ্যাওয়ে ভিত্তিতে খেলা হবে। আয়োজক ক্লাব সব খরচ করবে, গেটমানিও তারা ভাগ করে নেবে। আমাদের ক্লাবগুলো যেভাবে টাকা চায় বাফুফে এত টাকা কোথায় পাবে? ফিফা ও এএফসি যে অনুদান দেয় তা আমাদের উন্নয়ন খাতে ব্যয় করতে হয়।’

Print Friendly, PDF & Email