বিজয় দিবস কুস্তিতে পুরুষে বিজিবি, মহিলাতে সেনাবাহিনী-অানসার যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক : বাংলাদেশ এ্যামেচার রেসলিং ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় দুই দিনব্যাপী ‘মার্সেল বিজয় দিবস কুস্তি প্রতিযোগিতায় পুরুষ বিভাগে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও মহিলা বিভাগে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বাংলাদেশ আনসার।

জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের জিমন্যাশিয়ামে অনুষ্ঠিত এবারের বিজয় দিবস পুরুষ ও মহিলা কুস্তি প্রতিযোগিতায় ৪টি দলের ১২০ জন নারী (৬০ জন) ও পুরুষ (৬০ জন) কুস্তিগীর অংশ গ্রহন করে।

অংশ নেয়া দল চারটি হলো : বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ, বাংলাদেশ পুলিশ ও বাংলাদেশ আনসার। পুুরুষ ও মহিলা বিভাগে ৮টি করে মোট ১৬টি ওজন শ্রেণিতে প্রতিযোগিতার খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ৫টি স্বর্ণ, ২টি রৌপ্য ও ১টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৮টি পদক জিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। ২টি স্বর্ণ, ২টি রৌপ্য ও ৪টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৮টি পদক নিয়ে রানার্স-আপ হয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এবং ১টি স্বর্ণ, ৪টি রৌপ্য ও ৩টি ব্রোঞ্জসহ ৮টি পদক নিয়ে তৃতীয় হয় বাংলাদেশ পুলিশ।

এদিকে, মহিলা বিভাগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ৪টি স্বর্ণ ও ৪টি রৌপ্য জয় লাভ করে। আর বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি দল একই সংখ্যক পদক জিতে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। ৫টি ব্রোঞ্জ জিতে বাংলাদেশ পুলিশ তৃতীয় স্থান অধিকার করে।

প্রতিযোগিতার ফলাফল : পুরুষদের ওজন শ্রেণির- ৫৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণজিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বেলাল হোসেন,  রৌপ্য জিতেছেন বিজিবির জ্ঞানেস্বর এবং  ব্রোঞ্জজিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের দেলোয়ার হোসেন।

৬১ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেনবিজিবির রনজু আহমেদ, রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের সফিক আলী এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেনবাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লিমন। ৬৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বিজিবির অং কা চিং চাক, রৌপ্য জিতেছেন  বাংলাদেশ আনসারের আমিনুল ইসলাম এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বেলাল হোসেন।

৭০ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের লিটন, রৌপ্য জিতেছেন  বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাহফুজ এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বিজিবির শাহিনুর। ৭৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বিজিবির দিপু রায়, রৌপ্য জিতেছেন  বাংলাদেশ আনসারের আনোয়ার হোসেন এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মোস্তফা।

৮৬ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বিজিবির নূর ইসলাম, রৌপ্য জিতেছেন  বাংলাদেশ আনসারের মোখলেছুর রহমান এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেহেদী। ৯৭ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বিজির আব্দুর রশিদ, রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাব্বির এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের রকিবুল ইসলাম।

১২৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর রিয়াজুল, রৌপ্য জিতেছেন বিজির রেজাউল এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের চঞ্চল মিয়া।

আর মহিলাদের ৪৮ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর হ্যাপি, রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের লিমা এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ পুলিশের রহিমা। ৫৩ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের রোজিয়া সুলতানা, রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শারমিন আক্তার এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ পুলিশের হাসি আক্তার।

৫৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর রুনা খাতুন, রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের শান্তা ইসলাম এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ পুলিশের নাসরিন। ৫৮ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নিপা আক্তার, রৌপ্যজিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের খালেদা আক্তার এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ পুলিশের শাকিলা।

৬০ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আসমা এবং রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের রুনা আক্তার। ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের চিং সানু মারমা এবং রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তানজিলা।

৬৯ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের রোজিনা খাতুন এবং রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর রুমা সুলতানা। ৭৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের শ্রাবনি মল্লিম, রৌপ্য জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শিখা আক্তার এবং ব্রোঞ্জ জিতেছেন বাংলাদেশ পুলিশের আকলিমা।

প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন, রানার্স-আপ ও তৃতীয় স্থান অধিকারকারী দলকে ট্রফি ও মেডেল দেওয়া হয়। এ ছাড়া প্রতিটি ওজন শ্রেণির প্রথম তিনজনকে ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে হোম অ্যাপ্লায়েন্স প্রদান করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email