বিপিএল ফুটবলে ব্রাদার্স ও বিজেএমসি’র ম্যাচ ড্র

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক চলমান ‘জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ’ ফুটবলে শনিবার এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত দিনের প্রথম খেলায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও টিম বিজেএমসির মধ্যকার ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছে। প্রথমার্ধে দুই বারের লীগ শিরোপাধারী বিজেএমসি এগিয়ে থাকলেও খেলার অন্তিম মুহূর্তে গোল শোধ করে হারের কবল থেকে রক্ষা পায় দুই বারের লীগ চ্যাম্পিয়ন ব্রাদার্স।

এই দুটি দল বলতে গেলে সমশক্তিরই। গত লীগে ব্রাদার্স পঞ্চম আর বিজেএমসি হয়েছিল সপ্তম। সেই লীগে বিজেএমসি-ব্রাদার্স দুবারই ড্র করেছিল (০-০ এবং ২-২)। যদিও শনিবারের ম্যাচের আগের দিন দুই দলই বলেছিল তারা জিতবে। কিন্তু বাস্তবে তো ‘যেই লাউ, সেই কদু!’ মানে আবারও সেই ড্রয়ের চক্কর।

ইনজুরির জন্য দলের হয়ে প্রথম ম্যাচে খেলতে পারেননি ব্রাদার্সের পাঁচ গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার ইব্রাহিম, কৃষ্ণা, ইমরুল, আনোয়ার এবং আউদু। লীগ শুরুর আগেই আহত হন প্রথম চার জন। শেষের জন চোট পান এবারের লীগে দলের প্রথম ম্যাচে। এদিকে মুক্তিযোদ্ধাও পায়নি তাদের নিয়মিত অধিনায়ক এলেটা কিংসলেকে। এবারের ফেডারেশন কাপে খেলতে গিয়ে ব্যথা পান কিংসলে। তবে সেটা মাঠের বাইরে। পড়ে গিয়ে হাঁটুর মাংসপেশীতে চোট পান।

খেলার প্রথমার্ধে বিজেএমসি এবং দ্বিতীয়ার্ধে ব্রাদার্স বেশি আক্রমণ করে খেলে। উভয় দলই গোলের একাধিক সুযোগ পায়। তা থেকে দু’দলই একবার সফলকাম হয়। খেলার ১১ মিনিটে বিজেএমসি গোল করে এগিয়ে যাবার সুযোগ হাতছাড়া করে। নাইজিরিয়ান মিডফিল্ডার স্যামসন ইলিয়াসুর থ্রু পাসে ব্রাদার্স ডিফেন্স ভেদ করেন ফরোয়ার্ড মেহেদী হাসান তপু।

বল নিয়ে আগুয়ান তপুকে আটকাতে পোস্ট ছেড়ে এগিয়ে আসেন ব্রাদার্স গোলরক্ষক উত্তম বড়ুয়া। তপুর নেয়া শটটি উত্তমের পায়ে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এর দুই মিনিট পরেই গোল করে এগিয়ে যায় বিজেএমসি। নিজ দলের এক ডিফেন্ডারের ব্যাক পাস ধরতে ব্যর্থ হন ব্রাদার্স গোলরক্ষক উত্তম। মিডফিল্ডার মোখলেসুর রহমান বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বল পাঠান অরক্ষিত পোস্টে (১-০)।

গোল শোধে হন্যে হয়ে ওঠে ব্রাদার্স। শানায় একের পর এক আক্রমণ। ২৯ মিনিটে নাইজিরিয়ান ফরোয়ার্ড এনকোচা কিংসলে একক প্রচেষ্টায় বিজেএমসির রক্ষণভাগ ছিন্ন করে বক্সের ডান কোনা থেকে তীব্র শট মারেন। কিন্তু সেই শটের বল সাইডপোস্টে লেগে ফিরে আসলে গোলবঞ্চিত হয় ব্রাদার্স।
৫৮ মিনিটে আরেক নাইজিরিয়ান ফরোয়ার্ড অগাস্টিন ওয়ালসনের করা থ্রু পাসে বল ফাঁকায় পেয়ে যান মান্নাফ রাব্বি। কিন্ত তার নেয়া শট অনায়াসেই লুফে নেন বিজেএমসি গোলরক্ষক-অধিনায়ক হিমেলের হাতে।

রেফারি জসিমউদ্দিন খেলার ৯০ মিনিট শেষ হয়ে গেলে চার মিনিট ইনজুরি টাইম যোগ করেন। ইনজুরি টাইমের তৃতীয় মিনিটে ব্রাদার্স দেখায় বিলম্বিত ভেল্কি বদলী ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ রনির ক্রসে হেড করে গোল করে ব্রাদার্সকে নিশ্চিত হার থেকে বাঁচিয়ে দেন এনকোচা কিংসলে (১-১)।

Print Friendly, PDF & Email