বিহারীর সেঞ্চুরিতে জিতলো আবাহনী

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : আবাহনীর টপ অর্ডার নড়বড়ে করে দিয়ে যখন উল্লাস করছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স, ঠিক তখন ক্রিজে নামলেন হানুমা বিহারী। ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের এই ক্রিকেটার শক্ত হাতে দাঁড়িয়ে গেলেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে। আর তাতেই লড়াই করার মতো স্কোর গড়লো আবাহনী এবং ৭৩ রানে জিতে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেটের সুপার লিগ শুরু করলো শনিবার।

মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে টস জিতে আবাহনীকে ব্যাট করতে পাঠায় গাজী গ্রুপ। ৯১ রানের মধ্যে প্রতিপক্ষের ৪ উইকেট নিয়ে দারুণ শুরু করে তারা। ১৭ রানে আবাহনী ২ উইকেট হারালে তিন নম্বরে নামা বিহারির সঙ্গে ৫২ রানের জুটি গড়েন সাইফ হাসান। ৩০ রানে এই ওপেনার ফেরার কিছুক্ষণ পর অধিনায়ক নাসির হোসেন (৯) আউট হন। এরপর মিঠুনের সঙ্গে বিহারীর দৃঢ়চেতা ব্যাটিং।

পঞ্চম উইকেটে তারা দুজন যোগ করেন ১৩৬ রান। ১১৭ বলে ৯ চার ও এক ছয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে এই প্রতিযোগিতা শুরু করেন বিহারী। মেহেদী হাসানকে ফিরতি বলে ক্যাচ তুলে দিলে থামে তার ১২৪ বলে ১০৯ রানের ম্যাচসেরা ইনিংস। শেষদিকে ৬১ বলে মিঠুনের ৭২ রানের দ্বিতীয় সেরা পারফরম্যান্সে ৬ উইকেটে ২৭৮ রান করে আবাহনী।

মেহেদী ও আবু হায়দার দুটি করে উইকেট নেন।

২৭৯ রানের লক্ষ্য দিয়ে ৬৮ রানের মধ্যে গাজী গ্রুপের চার উইকেট তুলে নেয় আবাহনী। আনুসতুপ মজুমদার হাফসেঞ্চুরি করে দলের ধাক্কা সামলান। তবে পারেননি অন্য ব্যাটসম্যানরা। ভারতের ‘এ’ দলের ক্রিকেটার সর্বোচ্চ ৬৪ রান করেন ৮০ বল খেলে। তাছাড়া মুমিনুল হকের ৪৬ রান ছিল গাজী গ্রুপের উল্লেখযোগ্য স্কোর।

৪৩ ওভারে ২০৫ রানে অলআউট হয় গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স।

সানজামুল ইসলাম সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন ১০ ওভারে ৫০ রান দিয়ে। দুটি করে নেন মাশরাফি মুর্তজা, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাসকিন আহমেদ। 

Print Friendly, PDF & Email