ব্যর্থতার বৃত্তে বন্দি আশরাফুলের কলাবাগান

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : ব্যর্থতার বৃত্ত আগের ম্যাচেই ভাঙতে পেরেছিল কলাবাগান ক্রীড়া চক্র। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে ৫৫ রানে হারিয়ে দিয়ে চমক দেখিয়েছিল মোহাম্মদ আশরাফুলের দল।

কিন্তু সেই চমক ধরে রাখতে পারলো না তারা। আবারও বন্দী হলো ব্যর্থতার বৃত্তে। ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের পঞ্চম রাউন্ডে এসে শাইনপুকুরের কাছে ৬ উইকেটে হারতে হলো আশরাফুলের ক্লাবটিকে।

মিরপুরের শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আশরাফুলদের ছুড়ে দেয়া ২৩৩ রানের চ্যালেঞ্জ ৪২.৩ ওভারে মাত্র ৪ উইকেট হারিয়েই টপকে যায় শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব। জয়ের জন্য ২৩৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই সাব্বির হোসেনের উইকেট হারিয়ে কিছুটা ব্যাকফুটে চলে যেতে হয় শাইনপুকুরকে।

তবে ওপেনার সাদমান ইসলাম আর ভারতীয় ব্যাটসম্যান উদয় কাউলের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। ৪৫ রানের জুটি গড়ে, ব্যক্তিগত ৩৪ রানে ফিরে যান উদয় কাউল। ৬০ বলে ৩৭ রান করে বিদায় নেন সাদমান ইসলামও। তৌহিদ হৃদয় আর আফিফ হোসেনের ব্যাটেই মূলতঃ জয় রচিত হয় শাইনপুকুরের।

৭১ বল খেলে ৬৩ রান করে আউট হন তৌহিদ হৃদয়। আফিফ হোসেন ৭০ বল খেলে অপরাজিত ছিলেন ৬৭ রানে। ২৪ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত ছিলেন শুভাগত হোম। ৪৫ বল হাতে রেখেই দারুণ এক জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় শাইনপুকুর।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে আকবর-উর রহমানের ৭১, মাহমুদুল হাসানের ৫২ এবং আবুল হাসানের ৪৭ রানের ওপর ভর করেই ২৩২ রানের লড়াকু সংগ্রহ গড়ে তোলে কলাবাগান। শুরুতেই কিন্তু টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপদে পড়ে যায় কলাবাগান। দুই ওপেনার মুনিম শাহরিয়ার ১, জসিমুদ্দিন বিদায় নেন ২ রান করে। তিন নম্বরে নামা মোহাম্মদ আশরাফুল তো রানের খাতাই খুলতে পারেননি।

৯১ বল খেলে ৭১ রানের ইনিংস গড়েন আকবর-উর রহমান। তাইবুর রহমান ৪৭ বলে খেলেন ২২ রানের ইনিংস। ৬৫ বলে ৫২ রান করেন মাহমুদুল হাসান। আবুল হাসান রাজু খেলেন বিধ্বংসী এক ইনিংস। ২৭ বলে তিনি খেলেন ৪৭ রানের ইনিংস।

Print Friendly, PDF & Email