ভাগ্যকে দোষ দিচ্ছেন না ব্রাজিল কোচ

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কগোলমুখে শট ২৬টি। কখনও বার কেঁপে উঠেছে, কখনও থিবো কোর্তোয়ার অসাধারণ সেভে হতাশায় ছেয়ে গেছে ব্রাজিল ক্যাম্প।

ভাগ্যকে দোষ দিতেই পারে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। তবে ব্রাজিল কোচ সে দলের নন। বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার পর ভাগ্যকে মোটেও দোষ দিচ্ছেন না তিতে।

বেলজিয়ামের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেছে ব্রাজিলের। কাজানের কোয়ার্টার ফাইনালে ১৩ মিনিটে ফের্নান্দিনিয়োর আত্মঘাতী

গোলের পর ৩১ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের চমৎকার গোলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম। তবে ৭৬ মিনিটে রেনাতো অগাস্তোর হেডে ব্রাজিল খেলায় ফেরার ইঙ্গিত দিলেও হার এড়াতে পারেনি সেলেসাওরা।

তবে গোলের কম সুযোগ তৈরি করেনি ব্রাজিল। একের পর এক আক্রমণ চালিয়ে গোলমুখে শটও করেছে, কিন্তু জালে আর জড়াতে পারেনি।

পোস্ট ঘেঁষে বল চলে গেছে কিংবা বারে আঘাত করেছে বল, এর সঙ্গে আবার ছিল বেলজিয়াম গোলরক্ষকের দুর্দান্ত সব সেভ। হারের পর অবশ্য ভাগ্য নিয়ে কথাই বলতে চাইলেন না তিতে, ‘ফুটবলে অদৃশ্যমান ব্যাপার আছে, তবে আমি ভাগ্য নিয়ে কথা বলাটা পছন্দ করি না।’

ভাগ্যে বিশ্বাসই করেন না ব্রাজিল কোচ, ‘এই বিষয়টা নিয়ে কথা বললে প্রতিপক্ষকে নিচু করা হয়। তাই আমি ভাগ্যে বিশ্বাসী নই। কোর্তোয়া ভাগ্যবান কিনা? না, ও দুর্দান্ত।

বারে বল লাগার ব্যাপারে কী বলার আছে।’ তবে হারটা মেনে নিতে ঠিকই কষ্ট হচ্ছে তিতের, ‘এলোমেলো ব্যাপার, দুর্ঘটনা- এগুলো ঘটে থাকে ফুটবলে।

আর আজ (শুক্রবার) এটা ঘটেছে। কথাটা বলতে কষ্ট হচ্ছে, তবে বেলজিয়ামকে মোটেও খাটো করা যাবে না, ওরা দুর্দান্ত দল। যদিও সুযোগগুলো আমাদের সঙ্গে নিষ্ঠুর আচরণ করেছে।’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘সত্যি এটা খুব কষ্টের, হারটা মেনে নেওয়া ভীষণ কঠিন।’ 

Print Friendly, PDF & Email