ভুবনেশ্বরের ৫, টি-টোয়েন্টিতে জয়ে শুরু ভারতের

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : ওয়ান্ডারার্সে আগের চার টি-টোয়েন্টিতে পরে ব্যাটিং করা দলই জিতেছিল। সেই ধারা এবার ভাঙলো ভারত। রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২০৪ রানের টার্গেট দিয়ে বিরাট কোহলির দল জিতলো ২৮ রানে। ভুবনেশ্বর কুমারের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৯ উইকেটে ১৭৫ রান করে স্বাগতিকরা। তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেলো ভারত।

আগের চার ম্যাচের অভিজ্ঞতা থেকে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন প্রোটিয়া অধিনায়ক জেপি দুমিনি। ইনজুরিতে এবি ডি ভিলিয়ার্স ছিটকে পড়ায় স্বাগতিকদের অনভিজ্ঞ দলে অভিষেক হয় হেনরিক ক্লাসেন ও জুনিয়র দালার। ক্লাসেন ওয়ানডেতে দারুণ খেলে সুযোগ পান। আর দালা প্রথমবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সুযোগ পান। নিজের প্রথম দুই ওভারে দুটি উইকেট নিয়ে শুরুটা স্মরণীয় করে রাখলেন এ ডানহাতি পেসার।

অভিষেক ম্যাচে প্রথম ওভারে রোহিত শর্মাকে নিজের শিকার বানান দালা। ৯ বলে ২টি করে চার ও ছয়ে ২১ রান করে দারুণ শুরু এনে দিয়ে আউট হন রোহিত। দালা পরের ওভারে ফেরান প্রায় এক বছর পর জাতীয় দলে ফেরা সুরেশ রায়নাকে (১৫)। তবে রানের গতি ঠিকভাবে ধরে রেখেছিলেন শিখর ধাওয়ান। মাত্র ৩৯ বলে ১০ চার ও ২ ছয়ে ইনিংস সেরা ৭২ রান করেন তিনি। তার দুর্দান্ত ইনিংসে ভারত ৫ উইকেটে করে ২০৩ রান।

অধিনায়ক কোহলির অবদান খুব বেশি নয়। ২০ বলে ২৬ রান করেন তিনি ২ চার ও ১ ছয়ে। শেষ দিকে মনীষ পান্ডের ২৭ বলে অপরাজিত ২৯ রানে দলীয় স্কোর দুইশ পার হয়। হার্দিক পান্ডিয়া ৭ বলে করেন ১৩ রান।

দালা প্রোটিয়াদের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ২ উইকেট নেন।

লক্ষ্যে নামার পর স্বাগতিকরা তোপের মুখে পড়ে। ভুবনেশ্বর কুমার তারা টানা তিন ওভারে জেজে স্মাটস (১৪), দুমিনি (৩) ও ডেভিড মিলারকে (৯) ফিরিয়ে শুভ সূচনা এনে দেন। এই ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আভাস দিয়েছিলেন রিজা হেন্ডরিকস ও ফারহান বেহারডিয়েন। ৮১ রান যোগ করেন তারা একসঙ্গে ক্রিজে থেকে। যুজবেন্দ্র চাহালের কাছে ৩৯ রানে বেহারডিয়েন উইকেট হারালে আর দাঁড়াতে পারেনি স্বাগতিক ব্যাটসম্যানরা।

১৮তম ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে সব আশা শেষ হয় তাদের। ওই ওভারে ইনিংসের সেরা ৭০ রানে ভুবনেশ্বরের শিকার হন হেন্ডরিকস। ভারতীয় পেসার একে একে সাজঘরে পাঠান ক্লাসেন (১৬) ও ক্রিস মরিসকে (০)। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে প্রথমবার ৫ উইকেট পান ভুবনেশ্বর। ২১ রানের ব্যবধানে শেষ ৬ উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

ভুবনেশ্বর ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়ে নেন ৫ উইকেট। চাহালের পর দ্বিতীয় ভারতীয় বোলার হিসেবে এক ইনিংসে ৫ উইকেট পেয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন এই ডানহাতি পেসার।

Print Friendly, PDF & Email