মেসির মতো ফুটবলার ৫০ বছরে একবারই জন্মায়

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : ম্যাচ শেষে দুই দলের সবাই মাঠে নামার কিছুক্ষণ পরেই দৃশ্যটা দেখা গেল। এক গাল হাসি নিয়ে নেমে এসেছেন আন্তোনিও কন্তে। কিছুক্ষণ পর লিওনেল মেসিকে খুঁজে নিলেন চেলসি কোচ। আলিঙ্গনে বেঁধে দুজনে কিছুক্ষণ কথাও বললেন। একটু আগেই বড় হারের চিহ্ন খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না কন্তের চোখেমুখে। কী এমন কথা বললেন দুজন!

ইংলিশ লিগে এরই মধ্যে শিরোপা দৌড় থেকে ছিটকে পড়েছে চেলসি। মৌসুম শেষে চাকরি খোয়াতে পারেন কন্তে, এমন গুঞ্জন বাতাসে ভাসছে বেশ কিছুদিন ধরেই। এর মধ্যে চ্যাম্পিয়নস লিগের সাফল্যই অবলম্বন হতে পারত কন্তের। কিন্তু বার্সেলোনার মাঠে ৩-০ ব্যবধানে হেরে প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নিয়ে সে স্বপ্নটা গুঁড়িয়ে গেছে। কিন্তু কন্তে এমন হারের পরও মন খারাপ করছেন না। কারণ, তাঁর খেলোয়াড়েরা যে সম্ভাব্য সর্বোচ্চটাই দিয়েছে। কিন্তু প্রতিপক্ষ দলে যে একজন মেসি ছিলেন, ‘আমার খেলোয়াড়দের প্রশংসা করতেই হবে।

আমি গর্বিত, কারণ ওরা নিজেদের উজাড় করে দিয়েছে। কিন্তু মেসিই পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। সরাসরি মেসির প্রশংসা করার সুযোগ যখন পাবেন, তখন এমন অসাধারণ খেলোয়াড়ের স্তুতি গাওয়াটাই উচিত। একজন খেলোয়াড় এক মৌসুমে না, প্রতি মৌসুমে ৬০ গোল করছে। আমরা অবিশ্বাস্য এক খেলোয়াড়কে নিয়ে কথা বলছি, যে বিশ্বের সেরা।’ 

কিছুদিন আগে এমন স্তুতি ঝরেছে ডিয়েগো সিমিওনের কণ্ঠেও। মেসি অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে খেললে দুই সপ্তাহ আগের সে ম্যাচে বার্সা হারত—এমন কথাও বলেছেন সিমিওনে। কাল চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচটাও ছিল তেমনই এক ম্যাচ। প্রথমার্ধে নিঃসন্দেহে সেরা দল ছিল চেলসি। কিন্তু মেসির দুটি মুহূর্তেই ২-০ গোলে পিছিয়ে গেছে ইংলিশ ক্লাব। দ্বিতীয়ার্ধেও যখন ম্যাচে ফেরার অপেক্ষায় চেলসি, তখনই মেসির গোল। কন্তে তাই অম্লান বদনে স্বীকার করে নিলেন, এমন খেলোয়াড়ের দেখা পাওয়া সৌভাগ্যের ব্যাপার।

বার্সেলোনা ও মেসির সম্পর্ক যে যুগে যুগে দেখা যায় না, সেটিই বলেছেন ইতালিয়ান কোচ, ‘মেসি এমন এক খেলোয়াড়, যে দলের হয়েই খেলুক, ফলাফল বদলে দিতে পারে। কিন্তু সে বার্সেলোনার হয়েই খেলা শুরু করেছিল এবং নিশ্চিত সে বার্সেলোনাতেই ক্যারিয়ার শেষ করবে। অনেক দলই তাঁকে পাওয়ার আশা করে কিন্তু এটা অসম্ভব। এটা বার্সেলোনা ও মেসির জন্য দারুণ এক গল্প। এমন খেলোয়াড় ৫০ বছরে একজনই জন্মায়। আমরা এমন একজনের কথা বলছি, যার সে দক্ষতা, ক্ষমতা ও স্কিল আছে। সে দুর্দান্ত।’

 
Print Friendly, PDF & Email