‘মৎস্য মানবী’ হয়ে ব্লুমের ইতিহাস

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : জলের দ্রুততম মানবী হওয়ার শর্ত যদি ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল হয় তাহলে ৫০ মিটার জিতলে কি বলবেন? মৎস্য মানবী! এ ছাড়া তো আর কিছু হতে পারে না। তো রিও অলিম্পিকের পুলে ঝড় তুলে এবারের আসরের ‘মৎস্য মানবী’র খেতাব জুতিলেন ডেনমার্কের পারনিল ব্লুম।

মেয়েদের ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইল জিতেছেন ২২ বছরের এই যুবতী। ৬৮ বছরের মধ্যে এই প্রথম সাঁতারে অলিম্পিক সোনা জিতল ডেনিশরা। ডেনিশদের জন্য এই জয় খুব আবেগের। আর ফাইনালের আগেই তাদের স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন ব্লুম। হিটের সবার সেরা টাইমিং করেছিলেন। তবু ফাইনালে ফেভারিট ভাবা হচ্ছিল না তাকে।

কারণ, গোটা ক্যারিয়ারে রিলে সাঁতার করেছেন। তাই ব্যক্তিগত ইভেন্টের সাঁতারুর দলে রাখা হচ্ছিল না তাকে! কিন্তু ক্যারিয়ারের প্রথম বড় কোনো শিরোপা জিতে ব্লুমই ডেনমার্কের অলিম্পিক ইতিহাস লিখলেন নতুন করে। অলিম্পিক সাঁতারে সোনা জেতা ইতিহাসের তৃতীয় ডেনিশ তিনি। ১৯৪৮ সালে ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে গ্রেটা অ্যান্ডারসন ও ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে ক্যারেন হ্যারাপ জিতেছিলেন সোনা।

এবার তাদের পাশে দাঁড়ালেন ব্লুম। শুরুটাই বিস্ফোরক ছিল ব্লুমের। সেটা ধরে রেখেছেন শেষ পর্যন্ত। এক ল্যাপের সাঁতার স্প্রিন্টটা জিতে নিয়েছেন ২৪.০৭ সেকেন্ডে। আমেরিকার সিমিওনে ম্যানুয়েল ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল জিতে ইতিহাস গড়েছিলেন।

অষ্টম দিনে মিডলে রিলেতে আসরের দ্বিতীয় সোনা জিতলেন। কিন্তু ৫০ মিটারের ফেভারটি ব্লুমের ঠিক পেছনে থেকেছেন তার চেয়ে ০.০২ সেকেন্ড সময় বেশি নিয়ে। আরো ০.০২ সেকেন্ড পেছনে থেকে বেলারুশের আলিয়াকসান্দ্রা হেরাসিমেনিয়া জিতেছেন ব্রোঞ্জ।

Print Friendly, PDF & Email