লিটনের সেঞ্চুরি ব্যর্থ করে রূপগঞ্জের জয়

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : জয়ে সুপার লিগ শুরু করা প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব বড় স্কোরের আভাস দিয়েছিল, সেঞ্চুরি করে যার কারিগর ছিলেন ওপেনার লিটন দাস। কিন্তু পরের ব্যাটসম্যানরা সেই গতি ধরে রাখতে পারেনি। এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিকে ব্যর্থ করে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ সুপার লিগে প্রথম জয় পেলো ৫ উইকেটে।

মিরপুরে মঙ্গলবার আগে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেটে ২৫৭ রান করে প্রাইম দোলেশ্বর। জবাবে ৪৮.৪ ওভারে ৫ উইকেটে ২৬০ রান করে রূপগঞ্জ। এই জয়ে ১৩ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে তারা। শীর্ষে থাকা আবাহনী লিমিটেড (১৮) এগিয়ে দুই পয়েন্টে। তাদের হারিয়ে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব (১৬) তিন নম্বরে।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রাইম দোলেশ্বর ৬৯ রানে প্রথম উইকেট হারায়। এরপর ফজলে মাহমুদকে নিয়ে লিটনের একশ ছাড়ানো জুটি। ২১ ওভার একসঙ্গে ক্রিজে ছিলেন তারা। ১২৩ বলে লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি করার তিন বল পরই আউট হন লিটন। ২৩ বছরের এ ডানহাতি ব্যাটসম্যানের ইনিংসটি ছিল ১২৬ বলের, ৯ চার ও ২ ছয়ে ১০৭ রান করেন তিনি।

ফজলে মাহমুদের ৪৬ ও ইকবাল আব্দুল্লার অপরাজিত ৪২ রানে দোলেশ্বর আড়াইশ পেরিয়ে যায়।

রূপগঞ্জের নাঈম ইসলাম সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন।

লক্ষ্যে নেমে আব্দুল মাজিদ ও মোহাম্মদ নাইমের ১৪০ রানের জুটিতে রূপগঞ্জের জয়ের ভিত গড়ে ওঠে। ২৯তম ওভারের পঞ্চম বলে মাজিদকে ৫৮ রানে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙে দোলেশ্বর। কয়েক ওভার পর নাইম ইনিংস সেরা ৮৮ রানে আউট হলে রূপগঞ্জের কাজ সহজ করে দেন মুশফিকুর রহিম। ৩৬ বলে ৩ চার ও ২ ছয়ে ৪১ রানে দলের স্কোর ২০০ করে আউট হন এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

অধিনায়ক নাঈম ৩১ রান করে দলকে জয়ের আরও কাছে নিয়ে যান। তিনি আউট হওয়ার পর অভিষেক মিত্র ও নাজমুল হোসেন মিলন ৬ রানে অপরাজিত থেকে দলকে লক্ষ্যে পৌঁছে দেন।

ফরহাদ রেজা প্রাইম দোলেশ্বরের পক্ষে সবচেয়ে বেশি দুই উইকেট নেন। ১৩ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে তারা। 

Print Friendly, PDF & Email