শুক্রবার শুরু হচ্ছে জাতীয় বয়সভিত্তিক সাঁতার ও ডাইভিং প্রতিযোগিতা-২০২২

স্পোর্টস লাইফ প্রতিবেদক  : বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় ও সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড এর পৃষ্ঠপোষকতায় আগামী ১১-১৩ নভেম্বর ২০২২ পর্যন্ত “সাইফ পাওয়ারটেক ৩৫তম জাতীয় বয়সভিত্তিক সাঁতার ও ডাইভিং প্রতিযোগিতা” সৈয়দ নজরুল ইসলাম জাতীয় সুইমিং কমপ্লেক্স, মিরপুর, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

এ উপলক্ষে বুধবার (০৯-১১-২০২২) বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের ডাচ বাংলা ব্যাংক অডিটরিয়ামে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
 
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশনর সাধারণ সম্পাদক এম বি সাইফ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশনের সহ-সভাপতি মোঃ আবদুল হামিদ, যুগ্ন-সম্পাদক মোঃ সেলিম মিয়া, কোষাধ্যক্ষ মোঃ রেজাউল হোসেন বাদশা, কার্যনির্বাহী সদস্য নিবেদিতা দাস সহ অনেকেই।
সাধারণ সম্পাদক জানান, আগামী ১০ নভেম্বর দুপুর ২টা থেকে সাঁতারুদের উপস্থিতি ও মেডিকেলের মাধ্যমে বয়সের গ্রুপ নির্ধারণ করা হবে।
 
যাদের পূর্বে মেডিকেল হয়েছে তাদের নতুন মেডিকেলের প্রয়োজন নাই। পূর্বের কার্ড অনুযায়ী বয়স নির্ধারণ করা হবে। বয়সভিত্তিক সাঁতার প্রতিযোগিতায় বালক-বালিকা ৫টি গ্রুপে (অনুর্ধ ১০, ১১-১২, ১৩-১৪, ১৫-১৭ ও ১৮-২০ যুবক-যুবতী) সাঁতারুরা অংশগ্রহণ করবে। বয়সভিত্তিক সাঁতার প্রতিযোগিতায় ৩ দিনে সাঁতারে ১০০ টি ইভেন্ট ও ডাইভিং এ ৩টি ইভেন্ট (১ মি: প্রিং বোর্ড, ৩ মি: প্রিং বোর্ড ও ৫ মি: প্লাটফর্ম ডাইভিং) মোট ১০৩টি ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। মিরপুর সুইমিং কমপ্লেক্সে ডাইভিং পুলে স্প্রিং বোর্ড সংযোজন হওয়ায় ডাইভিং প্রতিযোগিতা এবার এই সুইমিং পুলেই অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য যে, কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।
 
বিজয়ী সাঁতারুদের স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জ পদক প্রদান করা হবে। দলগত চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দলকে ট্রফি প্রদান করা হবে। এছাড়াও সেরা সাঁতারু বালক ও বালিকাকে ব্যক্তিগত ট্রফি প্রদান করা হবে এবং আর্থিক পুরস্কার প্রদান করা হবে ।
 
এ প্রতিযোগিতায় বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা, জেলা ক্রীড়া সংস্থা, সুইমিং ক্লাব, শিক্ষা বোর্ড, বিকেএসপি, বাংলাদেশ আনসার ও বাংলাদেশ পুলিশসহ মোট ৯০টি টীমের প্রায় ৩০০ জন খেলোয়াড়, ১১০ জন টীম অফিসিয়াল ও ১০০জন মিট অফিসিয়ালসহ সর্বমোট ৫১০জন অংশগ্রহণ করবে বলে আশা করা যাচ্ছে।
 
চূড়ান্ত খেলোয়াড়ের সংখ্যা মেডিকেলের পর নির্ধারিত হবে। এ প্রতিযোগিতা আয়োজনে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড সম্পূর্ণ টাকা প্রদান করবেন। স্থানীয় টীম, বিকেএসপি, বাংলাদেশ আনসার ও বাংলাদেশ পুলিশ ব্যতিত সকল দলের সাঁতারু ও অফিসিয়ালের যাতায়াত, থাকা ও খাওয়ার খরচ বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশন বহন করবে। সুইমিং কমপ্লেক্সের ডরমেটরী, ক্রীড়া পল্লী-১ ও ক্রীড়া পল্লী-২ তে সাঁতারু ও অফিসিয়ালদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে আবাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
 
সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড ২০১৩ সাল থেকে জাতীয় বয়সভিত্তিক সাঁতার প্রতিযোগিতায় নিয়মিত পৃষ্টপোষকতা করে আসছেন। এছাড়াও সেরা সাঁতারুর খোঁজে বাংলাদেশ শীর্ষক সুইমার ট্যালেন্ট হান্ট কর্মসূচিতেও সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছেন।
Print Friendly, PDF & Email